Press "Enter" to skip to content

কখনো হিন্দু কখনো মুসলিম সেজে ঘুরে বেড়ানো লালু প্রসাদের ছেলেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন এই মহিলা।

RJD পার্টির এর সুপ্রিমো লালু প্রসাদ যাদবের ছেলে তেজ প্রতাপ এখন তার নতুন রূপের জন্য সোশ্যাল মিডিয়া ও খবরে ছেয়ে রয়েছে। সম্প্রতি তেজ প্রতাবের একটা ছবি দেওঘর থেকে সামনে এসেছে যা সোশ্যাল মিডিয়া ভাইরাল হয়ে পড়েছে। ছবিতে তেজ প্রতাবকে ভগবান শিবের অবতারে দেখা যাচ্ছে। কিন্তু ভোটব্যাঙ্কের রাজনীতির জন্য এইসকল রূপে সাজা হচ্ছে তা বুঝতে বাকি রাখেনি দেশের জনগণ। কারণ তেজ প্রতাব যেইমাত্র শিব ছেড়ে ছবি ভাইরাল করতে শুরু করেছে সেই মাত্র দেশের জনগণ আরেকটা ছবি সামনে এনেছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে লালু প্রসাদের ছেলে তেজ প্রতাব এক বিশেষ সম্প্রলদায়ের তোষণের জন্য তাদের টুপি পরে তাদের উৎসবে মেতে উঠেছে।

আর অন্যদিকে এখন হিন্দু সমাজের ৩% থেকে ৪% মানুষ যেইমাত্র একতা আনতে শুরু করেছে সেই তেজ প্রতাব হিন্দুদের উৎসবগুলিতে নানা রূপে দেখা দিতে শুরু করেছে। আসলে নব জাগ্রত হিন্দু সমাজের ভোট যাতে হাতছাড়া না হয়ে তার জন্য হিন্দু দেবদেবীর নানা রূপে এসে হিন্দুসমাজের মন জয় করার চেষ্টা করছে তেজ প্রতাব। এর আগেও তেজ প্রতাব ভগবান কৃষ্ণের মতো সেজে সামনে এসেছিলেন। শুধু ভগবান কৃষ্ণের মতো সেজেই আসেননি সেই সাথে ভগবান কৃষ্ণের মতো করে বাঁশি নিয়ে হিন্দুদের মন গলানোর কাজ করছিলেন।

বসন্ত পঞ্চমীতেও তেজ প্রতাব সরস্বতী পূজা করে চর্চায় এসেছিলেন। সেই সময় উনার জিলিবি বানানোর ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েপড়েছিলো। এরপর কয়েকবার তো এমন এমন কৃতি করেছিলেন যা সভ্য সমাজের কাছে বলাও লজ্জাজনক। এর অর্থ একদম সাফ এতদিন তেজ প্রতাব শুধু এক বিশেষ সম্প্রদায়ের তোষণ করে এবং তাদেরকে খুশি করে ভোটব্যাঙ্ক গড়ে বলার ধান্দায় ছিল কিন্তু এখন দেশে হিন্দুদের একতা বৃদ্ধি পাওয়া দেখে দুই সম্প্রদায়কে খুশি করতে লেগে পড়েছে।

তবে শুধু তেজ প্রতাব নয় দেশে মোদী ও যোগীর মতো ক্ষমতাশীল নেতা আসার পর থেকে কংগ্রেস থেকে RJD , এমনকি বড়ো বড়ো সেকুলারপন্থীরাও হিন্দুত্বের সামনে হাঁটু গাড়তে শুরু করে দিয়েছে। এই বিষয়ে দেশের জনগণ জমিয়ে নিজেদের প্রতিক্রিয়া দিতে শুরু করেছে। সোনাম মহাজন নামে এক মহিলা ইউজার এই বিষয়ে লিখেত গিয়ে বলেছেন, আমার দেশ বদলাচ্ছে। কল্পনার বিষয় এই যে শুধু মাত্র ৩% থেকে ৪% শতাংশ হিন্দু একটু জেগে উঠায় দেশের নেতাদের রূপ পরিবর্তন হতে শুরু করেছে। তাহলে যদি দেশের ৫০ শতাংশ হিন্দু সম্পুর্নভাবে জেগে উঠে তাহলে নেতাদের কি অবস্থা হবে।