Press "Enter" to skip to content

রোহিঙ্গা সম্পর্কিত বড়ো সতর্কবার্তা! বিজেপি শাসন না থাকা রাজ্যগুলির জন্য চিন্তাজনক খবর পেশ করলো সিকিউরিটি কমিশনার।

মায়ানমার সরকার রোহিঙ্গাদের তাদের দেশ থেকে বের করে দিয়েছে। ফলে তারা আশ্রয় হিসাবে বেঁছে নিয়েছে বাংলাদেশকে। বাংলাদেশ সীমান্তরেখা অতিক্রম করে তারা মাঝে মাঝে ঢুকে পরছে । এমন খবর প্রকাশ্যে এসেছে অনেকদিন আগেই। ফলে ভারতের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে বেশ বিপজ্জনক হয়ে উঠছে এই সীমান্ত অতিক্রমকারী রোহিঙ্গারা। এমনটা আসংখ্যা করে আগেই সতর্কতা জারি করা হয়েছিল। তবে এবার আরও এক সবার সামনে এল। পশ্চিমবঙ্গ থেকে রোহিঙ্গারা এবার দলে দলে ট্রেনে চেপে ের দিকে রওনা দিচ্ছে। আরপিএফের প্রিন্সিপ্যাল চিফ সিকিউরিটি কমিশনার এই ব্যাপারটি নিয়ে ইতিমধ্যেই সতর্ক করেছে আরপিএফ-কে।

সিকিউরিটি কমিশনার একটা চিঠি দিয়ে আরপিএফ কে জানিয়েছেন যে, রোহিঙ্গাদের উপর কড়া নজর রাখতে হবে। কারন তারা দলে দলে তাদের পরিবার পরিজনদের নিয়ে ট্রেনে চেপে রওনা দিচ্ছে। তাদের যদি কোনো ট্রেনের মধ্যে পাওয়া যায় তাহলে সরাসরি পুলিশ এর হাতে তুলে দিতে।

রোহিঙ্গা - বাংলাদেশী অনুপ্রবেশকারী - Rohinga
– বাংলাদেশী অনুপ্রবেশকারী – Rohinga

মোট ১৪ টি ট্রেন কে চিহ্নিত করা হয়েছে। যেগুলি দিয়ে শ্রমিকেরা অসম, পশ্চিমবঙ্গ, বিহার ও ওড়িশা থেকে কাজের খোঁজে অনেক লোক কেরলের দিকে পাড়ি দেন। সেই সমস্ত ট্রেন গুলিতে চেপেই রোহিঙ্গারা পাড়ি দিচ্ছে কেরলে।

রোহিঙ্গা - বাংলাদেশী অনুপ্রবেশকারী - Rohinga
রোহিঙ্গা – বাংলাদেশী অনুপ্রবেশকারী – Rohinga

গত অগাস্ট মাসে মায়ানমার সরকার রোহিঙ্গাদের বের করে দেওয়ার পর তারা ভারতে প্রবেশ করার চেষ্টা করে, কিন্তু ভারত সরকার রোহিঙ্গাদের কে আশ্রয় দিতে রাজি হয় নি নিরাপত্তার স্বার্থে। তাই তারা বাধ্য হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়।
#অগ্নিপুত্র