Press "Enter" to skip to content

কংগ্রেস প্রবক্তা সাংবাদিককে বললেন ‘ আপনি মোদীজির জন্য ভয়ভীতি।’ এর উত্তরে রোহিত সারদান যা জবাব দিলেন তাতে চুপ কংগ্রেসিরা।

দেশের প্রধানমন্ত্রী পদে যেদিন থেকে নরেন্দ্র মোদীজি বসেছেন সেদিন থেকে দেশ নতুন উচ্চতায় পৌঁছাতে শুরু করেছে। দেশে প্রতিদিন নতুন নতুন যোজনা দ্বারা পরিচিত হচ্ছে এবং লাভবান হচ্ছে দেশের গরিব জনগণ। আজ নরেন্দ্র মোদী সেই সমস্ত কাজ করে চলেছেন যা বহু যুগ ধরে শাসন ক্ষমতায় থাকার পরেও কংগ্রেস করতে পারেনি। তা সত্ত্বেও কংগ্রেস প্রায় সময় মোদী সরকারের উপর আক্রমণ করে বিজেপিকে ছোটো করার চেষ্টা করে।এখন কংগ্রেসের নেতারা ও প্রবক্তারা প্রায় দিন তাদের ভুলভাল বক্তব্যের জন্য খবরের শিরোনামে থাকেন।

সম্প্রতি কংগ্রেসের এক প্রবক্তা দেশের বড়ো চ্যানেল আজ টাক এ ভুলভাল মন্তব্য করার জন্য চ্যানেলের এনকার রোহিত সারদানার কাছে কড়া জবাব পান। আসলে রোহিত সারদানার মতো এনকাররা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাজগুলি মানুষের সামনে তুলে ধরেন এবং মোদীজির কাজ সম্পর্কে মানুষকে অবগত করেন। আর এই ব্যাপারটা কংগ্রেসের কখনো হজম হয় না। সেই কারণে কংগ্রেসের প্রবক্তা প্রবন কেডা টুইটারে ভুলভাল পোস্ট করেন যার যোগ্য উত্তর দেন রোহিত সারদান। কংগ্রেস প্রবক্তা পবন কেডা লিখেন, ” এটা রোহিত সারদানার ভুল নয়, উনি মোদীজির থেকে সবসময় ভয়ভীত থাকেন।

আজকাল কিছু সাংবাদিক ভয়ের ছায়ায় রয়েছেন। এটা কখনোই পত্রকারিতা হতে পারে না। সাংবাদিকদের আছে দিন খুব তাড়াতাড়ি আসবে।” এরপর বিখ্যাত সাংবাদিক রোহিত সারদান যা জবাব দেন তা কংগ্রেস প্রবক্তা প্রবন কেডা জন্মজন্মান্তরেও ভুলবে না। রোহিত সারদান বলেন, ” কেমন আচ্ছে দিন আসবে সাংবাদিকদের যেমন ইন্দিরা গান্ধীর সময় এসেছিল? মোদীজির থেকে কেউ ভয়ভীতি কিনা সেটা নিয়ে আপনারা চিন্তিত নন বরং আপনারা চিন্তিত এই ব্যাপারে যে এখন কেউ কেন আপনাদের থেকে ভয়ভীতি হচ্ছে না।”

প্রসঙ্গত, আপনাদের জানিয়ে রাখি ইন্দিরা গান্ধীর আমলে দেশে আপাতকাল লাগু হয়েছিল এবং সেইসময় দেশের সাংবাদিকদের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছিল। সেই আমলে কংগ্রেস বিরোধী কোনো খবর চাপলেও সাংবাদিকদের জেলে ঢুকিয়ে দেওয়া হতো। এই সূত্রেই কংগ্রেস প্রবক্তাকে জবাব দিয়ে চুপ করিয়া দেন রোহিত সারদান।