Press "Enter" to skip to content

গোহত্যা বন্ধ হলে তবেই গণপিটুনি বন্ধ হবে- RSS নেতা ইন্দ্রেশ কুমার।

আরএসএসের শীর্ষ নেতা ইন্দ্রেশ কুমার একটি সভাতে গিয়ে বললেন যে কোনো ধরনের গণ হিংসা সমর্থনযোগ্য নয়। তারা এই সব কিছু কে কোনো ভাবেই মেনে নেন না। তার মতে চারিদিকে যে গণপিটুনি হচ্ছে সেটা বন্ধ হবার একমাত্র পথ হল গরু খাওয়া বন্ধ করতে হবে। গরু খাওয়া বন্ধ করে দিলেই এটা বন্ধ হয়ে যাবে। আরএসএসের মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চের মার্গদর্শক হলেন এই ইন্দ্রেশ কুমার। এই দিন রাঁচিতে একটি অনুষ্ঠানে তিনি অংশগ্রহন করেন। সেখানে তিনি তার বক্তৃতা রাখতে গিয়ে বলেন যে, পৃথিবীতে যে এত গুলি ধর্ম রয়েছে তারা কেউই কিন্তু তাদের ধর্মস্থলে গোহত্যার কথা বলে না। কোনো ধর্মগ্রন্থে গোহত্যার কথা উল্লেখ নেই।

আপনার জাতিই হোক বা দল, পাড়াই হোক বা ঘর, কোনো স্থানেই তা কখনওই মেনে নেওয়া যায় না। তিনি আরও বলেন যে খ্রিষ্টান ধর্মের দেবতা যীশুখ্রিস্টের জন্ম হয়েছিল গোয়ালে। সেখানেও গরুকে মা বলে গন্য করা হয়। এমনকি মক্কা, মদিনাতেও গোহত্যা অপরাধ। তিনি বলেন যে যেখানে সব ধর্মে গোহত্যার কথা নিষিদ্ধ সেখানে আমরা ইশ্বরের শ্রেষ্ঠ সন্তান মানুষ হয়ে কি এই গোহত্যার বন্ধ করতে পারি না। আসলে ইন্দ্রেশ কুমার বোঝাতে চান যে যখন কোনো ধর্মে গো মাতাকে অত্যাচার করতে বলা হয়নি তখন কেন কোনো ধর্মকে আঘাত করে গো হত্যা করা হচ্ছে হিন্দুবহুল ভারতে।

তিনি বলেন, আমারা কি নিজেদের এই অপরাধ থেকে বিরত রাখতে পারি না। কিছু দিন ধরে এই গণপিটুনিরর ফলে হত্যার মত কান্ড বেড়েছে ফলে সুপ্রিমকোর্ট কেন্দ্রকে বলেছে এই ধরনের বিনা কারনে গোহত্যার করার বিরুদ্ধে সংসদে আইন আনার জন্য। এই প্রেক্ষিতেই তিনি বলেন যে শুধু আইন করে এটা বন্ধ করা সম্ভব নয় তাই আমাদের নিজেদের উচিৎ এই গোহত্যার করার মত পাপ থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখা। আর এই গোহত্যার বন্ধ হলেই এই হিংসা বন্ধ হয়ে যাবে বলে তার বিশ্বাস।
#অগ্নিপুত্র