Press "Enter" to skip to content

এবার মোদী আমলে রুশ সেনা শ্লোগান দিলো ‘ভারতমাতা কি জয়’। কারণ জানলে অবাক হবেন।

আমলে ভারত আন্তর্জাতিক স্তরে একের পর এক নতুন মাত্রা স্পর্শ করেই চলছে। যেখানে একদিকে নিজের ক্ষমতায় সাংহাই কর্পরাশেন সংগঠনের অংশ হয়েছে অন্যদিকে পাকিস্থান চীনের দয়ায় এই সংগঠনের সাথে যুক্ত হয়। এই সময় রুশে এই সংগঠনের সাথে যুক্ত দেশ যেমন ভারত, পাকিস্থান, চীন, রুশ ও অন্য দেশের সেনারা এক সাথে এসে যুদ্ধ অভ্যাস করছে। প্রত্যেকবারের মতো সাংহাই কর্পরাশেনেও ভারত পাকিস্থানকে সব অভ্যাসেই হারিয়ে ধূলো চাটিয়ে দিয়েছে। এর মধ্যেই একটা গৌরবান্বিত করার ছবি সামনে এসেছে যা ভারতীয়দের মন জয় করে নিয়েছে। এই বিষয়টি তখন সামনে এসেছে যখন ও পাকিস্থানের সেনার মধ্যে একটা খেলা চলছিল। এই খেলায় যখনই পাকিস্থানি সেনাদের হারিয়ে দেয় তখনই রুশের ‘ভারত মাতা কি জয়’ শ্লোগান দিতে শুরু করে।

পরিস্থিতি যে কাউকে অবাক করার মতো ছিল। এটা প্রমান করে যে ভারত ও রুশের সম্পর্ক কতটা গভীর। সম্পতি পাওয়া মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী মিলিটারি অভ্যাসের মধ্যকালে ফ্রেন্ডলি ভলিবল খেলার আয়োজন করা হয়েছিল। যেখানে ভারতীয় সেনা রুশ ও রুশ সেনা ভারতের জন্য চেয়ার করেছিল। ভারতের ম্যাচ পাকিস্থানের সাথে এবং রুশের ম্যাচ চীনের সাথে ছিল। ভারত পাকিস্থানকে হারিয়ে দেয় এবং রুশ সেনারা ভারতের জন্য সমর্থন জোগায়। জেতার পর ভারতীয় সেনার সাথে মিলে রুশের সেনারাও ‘ভারত মাতার জয়’ শ্লোগান দেয়। কানিয়ে দি এই সৈন্য অভ্যাস রুশের সাংহাই কর্পরাশেনের শান্তি মিশন ২০১৮ এর জন্য চলছিল।

আগের বছর ভারত ও পাকিস্থান এসসিও এর মেম্বার হয়েছিল। ভারত অনেক আগে থেকেই এই কর্পরাশেনের সাথে যুক্ত হওয়ার চেষ্টায় ছিল। এখানে সেনাদের আন্টি টেররোরিজম এর জন্য ট্রেনিং দেওয়া হয়। জয়েন্ট কামান্ডোর স্থাপনা কন্ট্রোল স্ট্রাকচার ও আতঙ্কবাদীর মতো বিষয়ের সাথে মোকাবিলা করার জন্য মকড্রিল অভ্যাসের করা হয়। আপনাদের স্মরণ করিয়ে দি ভারত ও রুশের সম্পর্ক আজ থেকে নয় বহু সময় ধরে শক্তিশালী। ১৯৭১ সালে যুদ্ধের সময় যখন আমেরিকা, চীন, সৌদি আরব ও অন্যান্য মুসলিম দেশ মিলে ভারতকে ঘিরে ফেলার চেষ্টা করেছিল।

 

তখন ভারতকে সংকট থেকে মুক্ত করতে এগিয়ে এসেছিল রুশ। সেই সময় রুশ সরাসরি চীনকে ধমক দিয়ে বলেছিল যদি তারা এই যুদ্ধে হস্তক্ষেপ করে তাহলে রুশের সাথে সরাসরি যুদ্ধ করতে হবে।রুশ পরমাণু হাতিয়ার সম্পন্ন জাহাজ মাঠে নামিয়েছিলো আমেরিকা ও UK কে আটকানোর জন্য। এটা সেই সময় ছিল যখন সমস্থ দেশ ভারতের বিরুদ্ধে ছিল আর, রুশ ভারতের সাথে ছিল আসল বন্ধ হিসেবে।