Press "Enter" to skip to content

লান্স নায়ক সন্দীপ সিং-সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের হিরো, শহীদ হওয়ার আগে যা করলেন তাতে আপনিও গর্বিত হবেন।

লান্স নায়ক সন্দীপ সিং: এই খবরটি যতটাই গর্বের ঠিক ততটাই দুঃখেরও। দুঃখের ব্যাপার এই যে, আমাদের মধ্যে আমাদের এক হিরো আর নেই। লান্স নায়ক সন্দীপ সিং যিনি ৪ প্যারা ইউনিটের কামান্ডো ছিলেন উনি বালিদানি হয়েছেন। কাশ্মীরে ডিউটি করার সময় উনি নিজের সর্বোচ্চ বলিদান দিয়েছেন। সেনা ইসলামিক আতঙ্কবাদীদের উপর এনকাউন্টার অপারেশন চালাচ্ছিল। এই এনকাউন্টার তানগধারে করা হয়েছিল যেখানে ৬ ইসলামিক আতঙ্কবাদীকে সেনা শেষ করে দিয়েছে। সন্দীপ সিং এই অপারেশনে বালিদানি হয়েছেন। ছয়জন আতঙ্কবাদীর মধ্যে ২ জন আতঙ্কবাদীকে সন্দীপ সিং মেরে ছিল সেই সময়েই উনার উপর গুলি লাগে।

গুলি খেয়ে আহত হওয়ার পরেও উনি সংঘর্ষ চালিয়ে যান, কিন্তু শেষপর্যন্ত উনি দেশের জন্য বলিদানি হন। যখন পাকিস্থানি সেনা উড়িতে হামলা চালিয়ে ছিল তারপর ভারতের সেনা পাকিস্থানের উপর সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালিয়ে ছিল। ওই সার্জিক্যাল স্ট্রাইকে ১০০ এর মতো পাকিস্থানি সেনা ও আতঙ্কবাদীকে ভারতীয় সেনার ৪ প্যারা ইউনিট শেষ করে দিয়েছিল। সন্দীপ সিং এই কামান্ডো ইউনিটের ছিলেন এবনভ সার্জিক্যাল স্ট্রাইকে সামিল ছিলেন। ৪ দিন পর পুরো দেশ সার্জিক্যাল স্টাইক দিবস পালন করবে কিন্তু সেই দিবসে আমাদের সাথে আমাদের বীর যোদ্ধা সন্দ্বীপ সিং থাকবেন না। মাত্র ৩০ বছর বয়সে দেশের জন্য বলিদানি হলেন সন্দ্বীপ সিং যিনি ভারত মাতার সেবার জন্য ২০০৭ সালে সেনায় যোগদান করেছিলেন। পাঞ্জাবের গুরদাসপুর জেলার কোটলাপুর গ্রামের ভারত মাতার এই বীর সন্তান জন্মগ্রহণ করেছিলেন।

প্যারা কামান্ডো সন্দীপ সিং একটা সিংহের মতো ছিলেন যিনি সম্পূর্ন নির্ভীক ছিলেন, উনি সর্বদা প্রথমে থেকে অপেরাশনে অংশ নিতেন। উনার টিম উনাকে হিরো বলে ডাকতো। দেশের রক্ষা করতে গিয়ে একজন বীর হিরো তার প্রাণের বলিদান দিয়েছেন এটা একটা গর্বের বিষয়। তবে উনার পরিবারের দুঃখকে কেউ কম করতে পারবে না, এটা সত্য।

বীর যোদ্ধা সন্দীপ সিং তার ৫ বছরের ছেলে, স্ত্রী ও মাতা পিতাকে ছেড়ে বলিদানি হয়েছেন। আজ সেনা বীর সন্দ্বীপ সিংকে শ্রদ্ধাঞ্জলি দিয়েছে। সন্দীপ সিং দেশের জন্য প্রাণ ত্যাগ করেছেন, এটা গর্বের বিষয় কিন্তু আমরা দেশের একটা বীর হিরোকে হারিয়েছি যা দুঃখের বিষয়। আমরা উনার বলিদানকে প্রনাম জানাই।