in

রাহুল গান্ধী মাসুদ আজাহারকে ‘জি” বলে সম্বোধন করে কোন ভুল করেননিঃ কংগ্রেস নেতা সঞ্জয় ঝাঁ

কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী আজ এক অনুষ্ঠানে পুলওয়ামা হামলায় ভারতের ৪৪ জন সিআরপিএফ এর জওয়ানের জীবন কেড়ে নেওয়া জঙ্গি জৈশ এ মহম্মদ এর প্রধান মৌলানা মাসুদ আজাহারকে ‘জি” বলে সন্মান দেন।

নরেন্দ্র মোদীর বিরোধিতা করতে করতে আজ রাহুল গান্ধী শহীদ সিআরপিএফ জওয়ানদের অসন্মান করে জঙ্গি মাসুদ আজাহারকে সন্মান দিলেন। রাহুল গান্ধীর এই বয়ান নিয়ে আজ দেশের রাজনীতি তুঙ্গে। রাহুল গান্ধী যদি মুখ ফসকে এই কথা বলে থাকতেন, তাহলে কংগ্রেসের নেতারা সহজেই এটা একটা নিছক দুর্ঘটনা বলে এড়িয়ে যেতে পারত।

কিন্তু এবার কংগ্রেসের নেতারা এটা প্রমাণ করে দিলো যে, রাহুল গান্ধী এটা ভুল করে না। ইচ্ছে করেই বলেছিল! কারণ এখন কংগ্রেসের মুখপাত্র রাহুল গান্ধীকে বাঁচানোর জন্য ময়দানে নেমে পড়েছে। কংগ্রেসের নেতা সঞ্জয় ঝাঁ মাসুদ আজাহারকে সন্মান দেওয়া নিয়ে রাহুল গান্ধীর সমর্থন করলেন।

সঞ্জয় ঝাঁ রাহুল গান্ধীর সমর্থনে বলেন, ‘যদি নরসংহার করা মানুষদের নামের পিছনে ‘জি” লাগানো যেতে পারে, তো মাসুদের নামের পিছনে কেন লাগানো যাবেনা? সঞ্জয় ঝাঁর বক্তব্য অনুযায়ী, রাহুল গান্ধী মাসুদের নামের পিছনে ‘জি” লাগিয়ে কোন ভুল করেনি।

আর দেশের প্রাক্তন পধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর মৃত্যুর ১ হাজারের উপরে শিখ সম্প্রদায়ের মানুষের নরসংহার করা রাজীব গান্ধীর নামের পিছনেও ‘জি” লাগিয়েছিল এই কংগ্রেস। তাই তাঁদের কাছে মাসুদের নামের পিছনে জি লাগানো কোন বড় ব্যাপার না।

 

যারা এয়ার স্ট্রাইককে সমর্থন করছে, তাঁদের মোদীর পিছনে ঢুকিয়ে দেওয়া উচিৎঃ কংগ্রেসের বিধায়ক

মিডিয়ার হাতে এলো এয়ার স্ট্রাইকের প্রমান: মৃত আতঙ্কবাদীর সংখ্যা কমপক্ষে ২৬৩ জন।