Press "Enter" to skip to content

এবার মাতা সীতাকে নিয়ে কুমন্তব্য করলো মোদী বিরোধী এই আইপিএস অফিসার।

বিশ্বে যদি কোনো সম্প্রদায় সবথেকে বেশি সহিষ্ণু হয়ে থাকে তা হলো হিন্দু সমাজ আর এর প্রমান ঘাটলেই পাওয়া যাবে। তবে সম্প্রতি আবারও এমন ঘটনা ঘটল যা জানার পর আপনি রেগে লাল হয়ে উঠবেন। আসলে গতকাল গুজরাটের এক সাসপেন্ডেড আইপিএস অফিসার হিন্দুদের ী মা সীতাকে নিয়ে কুমন্তব্য করে।

কিন্তু লজ্জার ব্যাপার এই বিষয়ে তথাকথিত সেকুলার(ধর্মনিরপেক্ষতাবাদী) ও বুদ্ধিজীবিরা চুপ। আপনাদের জানিয়ে রাখি সাসপেন্ডেড আইপিএস অফিসার সঞ্জীব ভাট মা সীতা ও হমুমানকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করেছেন। প্রসঙ্গত এই আইপিএস অফিসার একজন তথাকথিত সেকুলারপন্থী এবং বুদ্ধজীবী নামে পরিচিত। এই সঞ্জীব ভাটই গুজরাট দাঙ্গার দায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীজির উপর চাপিয়ে মোদীজির বদনাম করার চেষ্টা করেছিল

যদিও আদালত মোদীজিকে গুজরাট দাঙ্গার ব্যাপারে ক্লিন চিট দিয়েছিল। গতকাল সঞ্জীব ভাট বহুচর্চিত রুদ্ররুপী ের ছবি দেখে বলেন , ‘মা সীতা কি এই হনুমানের সাথে সুরক্ষিত?’

 

অনেকেই সঞ্জীব ভাট এর টুইট এর প্রতিবাদ করে বলেন যে আপনার বাড়ির লোক আপনার উপস্থিত জন্য যতটা সুরক্ষিত মনে করে নিশ্চয় তার থেকে বেশি সুরক্ষিত মা সীতা নিজেকে মনে করতেন। আসলে একজন মা(সীতা) ও তার ছেলের(হনুমান) সম্পর্ক কেমন হয় তার ন্যূনতম ধারণা হয়তো নেই সঞ্জীব ভাটের।

সঞ্জীব ভাট টুইট করে এই এই বক্তব্য রাখেন, যেখানে হিন্দুরা সঞ্জীব ভাটকে এই বিষয় নিয়ে ক্ষমা চাইতে বলেন। কিন্তু সঞ্জীব ভাট ক্ষমা চাওয়ার বিপরীত এই বিষয়ে তার অবস্থান পরিবর্তন করবেন না বলে জানান। পরে বেশকিছু হিন্দু যুবক সঞ্জীব ভাটের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে বলেও জানা গিয়েছে। আসলে সেকুলার সমাজ দিন দিন এতটাই শক্তিশালী হচ্ছে যে, যে কেউ সম্পর্কে কুমন্তব্য করেই যাচ্ছে এবং হিন্দু সঙ্গস্কৃতির একপ্রকার অপহরণ করছে।