Press "Enter" to skip to content

জানুন কলকাতা পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে সারদা মামলা নিয়ে কি কি অভিযোগ আছে?

কলকাতার পুলিশ কমিশনার সারদা আর রোজ ভ্যালি চিট ফান্ড মামলায় তদন্তরত পুলিশ অফিসার ছিলেন। এই মামলায় যুক্ত নথিপত্র ওনার কাছে আছে বলে সিবিআই এর ধারণা। এমনকি এ বিষয়ে উপযুক্ত প্রমাণ ও আছে সিবিআই এর কাছে সেটা জানান হয়েছে সিবিআই এর তরফ থেকে।

আরও পড়ুনঃ মমতার পুলিশ ঘিরে রেখেছিল CBI দপ্তর! কেন্দ্র CRPF নামানো মাত্র পলায়ন করলো বাংলার পুলিশ।

চিট ফান্ড মামলায় অভিযুক্ত দেবযানী মুখোপাধ্যায় এর তথ্য অনুযায়ী, মিডল্যান্ডে সারদার অফিসে কলকাতা পুলিশের তরফ থেকে হানা দেওয়ার সময় একটি লাল ডায়েরি আর একটি পেন ড্রাইভ বাজেয়াপ্ত করেছিল কলকাতা পুলিশ। কিন্তু সারদা মামলা সিবিআই এর হাতে যাওয়ার পর ওই দুটি গুরুত্বপূর্ণ নথি সিবিআই এর হাতে তুলে দেননি কলকাতা পুলিশের কমিশনার রাজীব কুমার।

আরও পড়ুনঃ বড় খবর: “বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন” জারির দাবি! CGO কমপ্লেক্সে নামানো হলো কেন্দ্রীয় বাহিনী।

ওই তথ্য গুলো নিজেদের কাছে নেওয়ার জন্য এর আগে চারবার তলব করা হয়েছিল রাজীব কুমারকে। কিন্তু উনি সিবিআই এর কর্তাদের সাথে সহযোগিতা করেননি বলে অভিযোগ। আর সেই বিষয়ে তদন্ত করার জন্য আবার ও ওনাকে জেরা করতে আজ উনার বাসভবনে গেছিল সিবিআই এর কর্তারা। আর তারপরেই ঘটে গেলো এক আজব কাণ্ড।

আরও পড়ুনঃ প্রশাসনিক ক্ষমতাকে অপব্যবহার করলো মমতা! কাজে বাধা দিয়ে ৫ CBI আধিকারিক আটক করলো পুলিশ। দেখুন লাইভ ভিডিও !West Bengal live|Bengali News

১৯৮৯ এর ব্যাচের আইপিএস অফিসার রাজীব কুমার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী রাজীব কুমারের ঘনিষ্ঠ বলে শোনা যায়। রাজীব কুমার ২০১৩ সালে সারদা মামলার তদন্ত নিয়ে রাজ্য সরকারের দ্বারা গঠিত স্পেশ্যাল ইনভেস্টিগেশন টিমের নেতৃত্বে ছিলেন। আর ওনার উপর তদন্তকারী অফিসার হিসেবে কারচুপির অভিযোগ উঠেছে।

আরও পড়ুনঃ ব্রেকিং খবর: দুর্নীতির বিরুদ্ধে তদন্ত করতে গিয়ে মমতার পুলিশের হাতে আটক সিবিআই কর্তারা!

এসআইটি-এর নেতৃত্বে থেকে রাজীব কুমার জম্মু-কাশ্মীর থেকে সারদা কর্তা সুদিপ্ত সেন আর ওনার সহযোগী দেবযানী কে গ্রেফতার করেছিলেন। আর তাঁদের অফিসে হানা দিয়ে সারদা কাণ্ডের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য একটি লাল ডায়েরি এবং একটি পেন ড্রাইভ বাজেয়াপ্ত করেছিলেন উনি। কিন্তু সেই ডায়েরি আর পেন ড্রাইভ তারপর আর দেখা যায়নি, ওই দুটি গুরুত্বপূর্ণ প্রমাণ লোপাটের অভিযোগ ওঠে আইপিএস রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে।

7 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.