Press "Enter" to skip to content

রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সাঁওতাল সংগঠন! শিক্ষক নিয়োগের দাবিতে আন্দোলনের ডাক।

ইসলামপুরের ছাত্রকে গুলি করা নিয়ে সারা রাজ্যজুড়ে জনগণ সরকারের বিরুদ্ধে পথে নেমে প্রতিবাদ করেছিল বহু মানুষ। এবার সেই ের বিরুদ্ধে একাধিক অস্বচ্ছতার দাবি তুলে রাস্তায় নামল সাঁওতাল সংগঠন গুলি।
ভোটের আগে ভোট পাওয়ার জন্য রাজ্যের শাসক দল তৃনমূল কংগ্রেস সাঁওতাল সমাজে নানা উন্নয়নমূলক কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু এতদিন হয়ে গেল সেগুলির একটিও তারা বাস্তবায়ন করেনি বলে অভিযোগ। তাই নিজেদের সমাজকে এই ভাবে পিছিয়ে দেওয়ার জন্য রাস্তায় নেমে সাঁওতাল সংগঠন গুলি প্রতিবাদ শুরু করেছে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে। এবং সেই সাথে তাদের দাবি উর্দু না করে সাঁওতালি ভাষা অর্থাৎ “অলচিকি হরফের” করা হোক।

এইরকম বেশ কয়েকটি দাবি নিয়ে সাঁওতাল সংগঠনগুলি জঙ্গল মহল এবং তার নিকট অঞ্চল গুলিতে পথে নেমে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন রাজ্যের এই অত্যাচারী শাসক দল তৃনমূলের বিরুদ্ধে। তাদেরকে প্রতিশ্রুতি দেওয়া বিভিন্ন দাবি নিয়ে তারা ভারত জাকাত ও মাঝি পরগনার বিভিন্ন অঞ্চলে পথ অবরোধ করেছেন। তারা ট্রেন আটকে দিয়েছেন খড়গপুর-টাটা রুটের বিভিন্ন দূরপাল্লা ট্রেন গুলিকে।

তারা ঠিক কি কি দাবি তুলে ধরছেন এই প্রতিবাদের মধ্যে দিয়ে?
জানা গিয়েছে, তারা চাই তাদের ভাষাকে স্বীকৃতি দেওয়া হোক। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পাশ করা অনেক যুবক যুবতী রয়েছে তাদের সমাজে তাদের সকলকে চাকরি দেওয়ার ব্যাপারে সরকারকে দ্রুত সিদ্ধান্ত জানাতে হবে। মাধ্যমিক স্তরের বিভিন্ন স্কুলে সাঁওতালি মাধ্যমের শিক্ষক নিয়োগ করতে হবে। এছাড়াও রাজ্য সরকার ভোটের আগে যে বলেছিল তাদের এলাকাগুলিতে উন্নয়ন করবে সেই কাজ এখন শুরু করেনি, তাই সেগুলি দ্রুত শুরু করার দাবি জানানো হয় এই বিক্ষোভে।

এছাড়াও তারা চান যে, আদিবাসী শিক্ষার পরিকাঠামো উন্নয়ন করতে হবে সেই সাথে বইপত্র সরবরাহ করতে হবে। যেসমস্ত অআদিবাসীরা আদিবাসী সার্টিফিকেটের সুবিধা ভোগ করছেন তাদের সেই সার্টিফিকেট দ্রুত বাতিল করতে হবে। পঞ্চম তপশিলি আইন চালু করতে হবে। আদিবাসী শিক্ষকরা যাতে রাজ্য সরকারের ক্ষোভের শিকার না হয় সেই দিকে স্থায়ী সমাধান বের করতে হবে। এই সব নানা দাবি নিয়েই তারা পথে নেমে বিক্ষোভ করছিল। আসুন তাদের নিজেদের মুখেই দেখে নিন তারা কি চাইছেন।
#অগ্নিপুত্র