Press "Enter" to skip to content

অযোধ্যা মামলা: ৩ মাসের মধ্যে রাম মন্দির নির্মাণের পরিকল্পনা তৈরির জন্য কেন্দ্রকে নির্দেশ দিল আদালত।

অবসান হলো দেশের সবথেকে বোড়ো ও পুরানো বিতর্ক। যে বিতর্কের জন্য দেশজুড়ে বহুবার শান্তিভঙ্গ হয়েছে, সেই বিতর্কের অবসান করলো দেশের সর্বোচ্চ আদালত। ৫০০ বছর ধরে বিতর্কে জুড়ে থাকা অযোধ্যার জমিতে রাম মন্দির নির্মাণ গঠনের উপর রায় দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। আদালত মন্দির নির্মাণের জন্য কেন্দ্র সরকারকে একটা ট্রাস্ট নির্মাণ করতে বলেছে। সেই ট্রাস্টের নেতৃত্বে মন্দির নির্মাণ করা হবে। ট্রাস্টের নির্মাণ কেন্দ্র সরকার করবে, সেহেতু আদালত নির্দেশ দিয়েছে ৩ মাসের মধ্যে সমস্থ পরিকল্পনা তৈরি করে নিতে।

প্রসঙ্গত জানিয়ে দি, আদালতে রায় একবারে নিরপেক্ষভাবে সামনে এসেছে। আদালত মুসলিমদের জন্য আলাদা জায়গা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। যাতে সেখানে মুসলিম পক্ষ নিজেদের ধার্মিক স্থল তৈরি করতে পারে। এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যাতে দেশে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় থাকে এবং কারোর মনে অসন্তোষ না তৈরি হয়। সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড তাদের দাবি প্রমান করতে ব্যর্থ হয়েছে। আদালত জানিয়েছে ইংরেজ আমল পর্যন্ত বাবরি মসজিদে কেউ নামাজ পড়ার প্রমান দেখাতে পারেনি। অন্যদিকে হিন্দুরা লাগাতার ওই স্থানে পূজো দিয়ে এসেছে।

শুধু এই নয়, আদালত জানিয়েছেন, বাবরি মসজিদ খালি স্থানে তৈরি হয়নি। অর্থাৎ মসজিদ তৈরি করা হয়েছিল অন্য কোনো স্থাপত্য এর উপর। এখন এই স্থাপত্য যে রাম মন্দির তাও আদালত ইঙ্গিত দিয়েছে। আদালতের ASI এর গবেষণাকে মান্যতা দিয়েছে। ASI দাবি করেছিল যে বাবরি মসজিদের নীচে রাম মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ ছিল। আদালতের শেষ রায় অনুযায়ী, জমিতে রামলীলা বিরাজমানের দাবি স্থায়ী থাকবে। অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণ হবে এবং মুসলিমদের একটা জমি অন্য কোথাও দিয়ে দেওয়া হবে তাদের ধার্মিক স্থল নির্মানের জন্য। ৫ একর জমি মসজিদ নির্মানের জন্য মুসলিমদের দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

you're currently offline