Press "Enter" to skip to content

“সিন্ধু প্রদেশে বাদ দিয়ে পুরো পাকিস্থান ধ্বংস করে দিক ভারত”: সাফি বুরফাত, পাকিস্থানী নেতা।

পাকিস্থানের বিগত কয়েক দশক থেকে কাশ্মীরকে দখল করার জন্য নানা পরিকল্পনা ফেঁদে থাকে। কিন্তু পাকিস্থান যে নিজের দেশকেই ঠিকমতো সামলাতে পারে না তার স্পষ্ট ছবি আবার সামনে এলো। পাকিস্থানের বর্তমান যা পরিস্থিতি তাতে পাকিস্থানের ভেতরের বিদ্রোহীদের সামান্য সাহায্য করে দিলেন পাকিস্থান চার টুকরোতে পরিণত হবে। ভারত ও পাকিস্থানের মধ্যে উত্তপ্ত অবস্থা দেখে পাকিস্থানের ভেতরে থাকা বিদ্রোহীরা প্রচন্ড সক্রিয় হয়ে উঠেছে। এই কারণেই পুলবামা হামলার পর থেকে দু দুবার পাকিস্থানের সেনার উপর হামলা হয়েছে যাতে ১৪ জন পাকিস্থানি সেনা প্রাণ হারিয়েছে। এই সমস্ত আক্রমন পাকিস্থানের ভেতরের বিদ্রোহীরায় করেছে যারা পাকিস্থানকে ভেঙে আলাদা আলাদা দেশ গঠন করতে চাই।

পাকিস্থান ভেঙে সিন্ধুপ্রদেশ গঠনের দাবি জানানো নেতা সাফি বুরফাত ভারত-পাকিস্থান স্থিতি নিয়ে বড় মন্তব্য করেছেন। সাফি বুরফাত বলেছেন আমরা ভারতের রাজনৈতিক নেতৃত্বের কাছে অনুরোধ করতে চাই যে ভারত পাকিস্থানে আক্রমন করে গুঁড়িয়ে দিক। কিন্তু পাকিস্থানের সিন্ধুপ্রদেশ এলাকায় যেন আক্রমণ না করা হয়। উনি বলেছেন যে সিন্ধুপ্রদেশ এলাকার মানুষ আতঙ্কবাদী দেশ পাকিস্থান থেকে আলাদা হতে চাই।

বুরফাত বলেন, ভারতের সাথে সিন্ধুপ্রদেশের মানুষের কোনো শত্রুতা নেই, আর আমরা এই পাকিস্থান দেশ থেকে আলাদা হতে চাই। তাই ভারত আক্রমণ করলে যেন সিন্ধু এলাকার কোনো ক্ষতি না করা হয়। বুরফাত বলেন যদি ভারতের সরকার আমাদের এটা আশ্বাস দেয় যে সিন্ধু এলাকায় আক্রমন হবে না, তাহলে আমরাও ভারতকে সাহায্য করবো। বুরফাত বলেন ভারত যদি আমাদের উপর আক্রমণ না করে তাহলে আমরা পাকিস্থানের সেনাকে ১ গ্লাস জল পর্যন্ত দেব না।

বুরফাত এটাও বলেন যে, ভারত অবশ্যই সিন্ধু এলাকায় থাকা পাকিস্থানের সৈন্য ক্যাম্পে বা সৈন্য প্রতিষ্ঠানে আক্রমন করতে পারে এবং ধ্বংস করতে পারে। বুরফাত তার প্রকাশিত ভিডিওতে সিন্ধু এলাকার মানুষদের এক হয়ে পাকিস্থানের বিরুদ্ধে বিদ্রোহে নামার জন্য অনুরোধ করেন। জানিয়ে দি, সিন্ধ এর মত প্রায় একই অবস্থা পাকিস্থানের বেলুচিস্তানের। বালোচ নেতা বলেছেন যদি আমরা পাকিস্থান থেকে আলাদা হতে পারি তবে সবার প্রথম ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মূর্তি গড়ে তুলব।

Be First to Comment

Leave a Reply