Press "Enter" to skip to content

“সরকারি দপ্তরে লাগানো হবে RSS এর শাখা, পারলে কেউ আটকে দেখাক” : মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান।

লোকসভা নির্বাচনের আগে মধ্যপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচন যা নিয়ে দেশজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়ে গিয়েছে। ে ঘোষণা করেছে যদি মধ্যপ্রদেশে তারা জয়লাভ করে তাহলে কে ব্যান করে দেওয়া হবে। আর নিয়েই শুরু হয়েছে একে অপরকে আক্রমণ। আসলে কংগ্রেস মনে করছে এর কারণেই গান্ধী/নেহেরু পরিবার শেষ হতে চলেছে। তাই যদি কোনোভাবে নির্বাচনে জেতা যায় তবে প্রধান বিরোধী সংগঠনকে ব্যান করে দেওয়া হবে। কংগ্রেস তাদের ঘোষণা পত্রে এটা সাফ প্রকাশ করেছে। শুধু এই নয় কোনো সরকারি কর্মী, ডক্টর, অধ্যাপক যদি এর সাথে যুক্ত থাকে তাকেও চাকরি ছড়াতে হবে বলে জানিয়েছে কংগ্রেসের নেতারা।

এই নিয়ে এবার রাহুল গান্ধীর উপর আক্রমণ শুরু করেছে।মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কংগ্রেসের ঘোষণা পত্রের উপর আক্রমন করে বলেছেন যদি বিজেপি জয়লাভ করে তাহলে এবার থেকে সরকারি কার্যালয়ে সঙ্ঘের শাখা লাগানো হবে। মুখ্যমন্ত্রী এক সভা থেকে বলেন-“সরকারি কার্যালয়ে RSS এর সভা হবে এবং সরকারি কর্মচারীরা সেখানে অংশনিতে পারবে। এটা কেউ আটকাতে পারবে না , যদি কেউ পারে তাহলে আটকে দেখাক।”

সোমবার দিন খরগাঁও জেলায় শিবরাজ সিং একটা সভার আয়োজন করা হয়েছিল সেখানেই তিনি এমন উক্তি করেন। মিডিয়া এই ব্যাপারে উনাকে প্রশ্ন করলে উনি বলেন সঙ্ঘের শাখায় যাওয়ার অনুমতি সকলকেই দেওয়া হবে এবং সমস্থ জায়গায় শাখার অনুষ্ঠান করার অনুমতি দেওয়া হবে। চৌহান বলেন আগে, রাজ্যের সরকারি কর্মচারীদের শাখায় যাওয়া নিয়ে নিষেধাজ্ঞা ছিল সেটা আমি এসে সরিয়েছিলাম।

কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে নিজের অহংকার দেখাবে এটা স্বাভাবিক ব্যাপার কিন্তু আমি থাকতে কোনো রকম নিষেধাজ্ঞা বা ব্যান লাগাতে দেব না। জানিয়ে দি মধ্যপ্রদেশে এই মাসের ২৮ তারিখে ২৩০ টি আসনের উপর ভোট প্রদান হবে যার ফলাফল ১১ ডিসেম্বরে সামনে আসবে। নির্বাচনের আগেই মুখ্যমন্ত্রীর এমন মন্তব্য বিজেপির জন্য ভালো সংকেত দিচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে।