Press "Enter" to skip to content

জম্মু কাশ্মীরের অনন্তনাগের জঙ্গি হামলায় শহীদ হলেন SHO আরশাদ খান

জম্মু কাশ্মীরের অনন্তনাগে হওয়া জঙ্গি হামলায় আহত হওয়া অনন্তনাগ সদরের SHO আরশাদ খান রবিবার চিকিৎসা চলাকালীন শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন।  SHO আরশাদ খান এর মৃত্যুর পর ওই জঙ্গি হামলায় শহীদ জওয়ানের সংখ্যা বেড়ে ৬ হয়ে গেলো। এর আগে অনন্তনাগের হামলায় ৫ জওয়ান শহীদ হয়েছিলেন।

আরশাদ খান

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, গুরুতর আহত অবস্থায় আরশাদ খানকে রবিবার শ্রীনগরের শের-এ-কাশ্মীর ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল কলেজে (SKIMS) থেকে অ্যাম্বুলেন্সের মাধ্যমে AIIMS এ নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। AIIMS এর চিকিৎসকেরা আরশাদ খানের চিকিৎসা শুরু করেছিলেন। কিন্তু ওনাকে বাঁচাতে পারেন নি তাঁরা, ওনার বুকে গুলি লেগেছিল। ১২ ই জুন বিকেলে মোটর সাইকেল করে দুইজন জঙ্গি সিআরপিএফ এর পেট্রোলিং পার্টিতে হামলা করেছিল।

এই হামলা অনন্তনাগের বাস স্ট্যান্ডের সামনে কেপি রোডে হয়েছিল। ওই হামলাই সেদিনই পাঁচ জওয়ান শহীদ হয়েছিলেন। এছাড়াও কয়েকজন আহত হয়েছিলেন। আহতদের মধ্যে SHO আরশাদ খানও ছিলেন। সেনার পালটা হানায় এক জঙ্গিও খতম হয়েছিল। মৃত জঙ্গির থেকে পাকিস্তানের সামগ্রী পাওয়া গেছিল।

আল উমর মুজাহিদ্দিন নামে জঙ্গি সংগঠন এই হামলার দায় স্বীকার করেছিল। মূল রুপে কাশ্মীরের বাসিন্দা জঙ্গি মুশতাক আহমেদ জরগর এই জঙ্গি সংগঠনের প্রধান। ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্স এর বিমান আইসি-৮১৪ হাইজ্যাক হওয়ার পর অটল বিহারী বাজপেয়ী সরকার যেই তিন জঙ্গিকে ছাড়তে বাধ্য হয়েছিল, তাঁদের মধ্যে মাসুদ আজাহার আর শেখ আহমেদ উমর সৈয়দ এর সাথে মুশতাক আহমেদ জরগর ও ছিল। মুশতাক আহমেদ জরগর এই সংগঠনের প্রধান বলে জানা যাচ্ছে।