Press "Enter" to skip to content

হিন্দুরা হিংস্র! আর সেটার প্রমাণ রামায়ণ মহাভারতেই পাওয়া যায়ঃ সীতারাম ইয়েচুরি

মহাসচিব সীতারাম ইয়েচুরি ( Sitaram Yechury ) এর বক্তব্য অনুযায়ী রামায়ণ আর মহাভারতের মত ধর্মগ্রন্থ থেকে প্রমাণ পাওয়া যায় যে, হিন্দুরাও হিংসক হতে পারে। বৃহস্পতিবার মধ্যপ্রদেশের ভোপালে এক সভায় তিনি বলেন, ‘রামায়ণ আর মহাভারত এর মত ধর্মগ্রন্থে হিংসার ঘটনার কোটি কোটি উদাহরণ আছে।” উনি বলেন, ‘ প্রচারকেরা একদিকে এই গ্রন্থ গুলোর উদাহরণ দেয়, আরেকদিকে তাঁরাই বলে, হিন্দুরা হিংস্র হতে পারেনা। এই কথার মধ্যে কি লজিক আছে যে, এক বিশেষ ধর্মের মানুষেরাই শুধু হিংসা ছড়ায়, আর হিন্দুরা শান্তি!”

সীতারাম ইয়েচুরি বলেন, আরএসএস তাঁদের প্রাইভেট আর্মি বানাচ্ছে। কিন্তু মহাজোট প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ক্ষমতাচ্যুত করবে। সীতারাম ইয়েচুরি ভোপালের এই সভায় ভোপাল লোকসভা আসনে কংগ্রেসের প্রার্থী ও উপস্থিত ছিলেন। উনি বলেন, এটা সাধারণ লোকসভা না, এটা সংবিধান বাঁচানোর লড়াই।

দিগ্বিজয় সিং অভিযোগ করে বলেন, ‘বিজেপি সংবিধানকে খেলনা বানিয়ে রেখেছে। বিজেপি সংবিধানে একদমই বিশ্বাস করেনা। এই লড়াই মানুষের সাথে না, এই লড়াই বিজেপির বিচারধারার বিরুদ্ধে লড়াই।” আপনাদের জানিয়ে রাখি, ভোপাল লোকসভা আসনের কংগ্রেস প্রার্থী দিগ্বিজয় সিং নেতা বলেই পরিচিত। উনি এর আগে সমস্ত হিন্দুদের সন্ত্রাসবাদী বলে আখ্যা দিয়েছিলেন।

আরেকদিকে সিপিএম এর মহাসচিব সীতারাম ইয়েচুরি ধর্মনিরপেক্ষতার আড়ালে বরাবরই হিন্দুদের দোষ দিয়ে এসেছে। এমনকি উনি সংখ্যালঘুদের পাশে দাঁড়িয়ে মুসলিম ভোট ব্যাংকে থাবা বসানোর জন্য ভারত ছেড়ে পাক প্রীতিও দেখিয়েছে। শুধু এনারাই না, সমস্ত স্বঘোষিত ধর্মনিরপেক্ষ নেতারাই ধর্মনিরপেক্ষতার নামে বরাবরই হিন্দু আর ভারতবর্ষকে আক্রমণ করে এসেছেন।

9 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.