Press "Enter" to skip to content

সোনিয়া গান্ধী ও মনমোহন সিং দেখা করলেন তিহাড় জেলে চিদাম্বরমের সাথে! সোনিয়াকেও জেলে ঢোকানোর দাবি জনগণের।

প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী এবং প্রবীণ কংগ্রেস নেতা পি চিদাম্বরম বর্তমানে তিহাড় জেলে লুটের মামলায় বন্দি আছেন। যদিও কংগ্রেসের অনেক নেতার উপরেই এই ধরণের অভিযোগ রয়েছে। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এবং কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী সোমবার চিদাম্বরমের সাথে দেখা করতে তিহাড় জেল গিয়েছিলেন। সোনিয়া-মনমোহনের আগে, চিদাম্বরমের পুত্র কার্তিও তার বাবার সাথে তিহাড় জেলে দেখা করতে পৌঁছেছিলেন। কার্তি চিদাম্বরম  দুই নেতাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তার বাবার সাথে দেখা করার পরে, কার্তি চিদাম্বরম জানান যে, “তিহাড় জেলে এসে দেখা করার জন্য আমার বাবা কংগ্রেসের অন্তর্বর্তীকালীন সোনিয়া গান্ধী এবং প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের প্রতি কৃতজ্ঞ। এই রাজনৈতিক লড়াইয়ে তাদের সমর্থন আমাদের পরিবারের পক্ষে একটি শক্তির মতো ”

সোশ্যাল মিডিয়ায় থেকে এর উপর নান প্রতিক্রিয়া আসতে শুরু হয়েছে। অনেকে বলেছেন সোনিয়া গান্ধীকেও তিহাড় জেলে ঢুকিয়ে দেওয়া হোক। চিদাম্বরমও দুই নেতার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। চিদাম্বরম তার টুইটার হ্যান্ডেলের মাধ্যমে জানিয়েছিলেন যে, “সোনিয়া গান্ধী এবং ডাঃ মনমোহন সিংয়ের আমার কাছে আসার জন্য আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ। কংগ্রেস দল যতদিন এরকম শক্তিশালী এবং সাহসী থাকবে ততদিন আমিও শক্তিশালী ও সাহসী থাকব। ”
জানিয়ে দি যে চিদাম্বরমের টুইটার হ্যান্ডলটি তার পরিবারের লোকেরা পরিচালনা করেন। তিনি আরও লিখেছেন যে “বেকারত্ব, স্বল্প মজুরি, জনতা সহিংসতা, ে লকআউট, বিদ্যমান চাকরি শেষ করা এবং নেতাদের কারাগারে বন্দী করা ছাড়া ভারতে সব ঠিক আছে।”

চিদাম্বরমকে এর আগে ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিচারিক হেফাজতে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু গত বৃহস্পতিবার শুনানি চলাকালীন চিদাম্বরমের বিচারিক হেফাজতে থাকার মেয়াদ ৩ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়িয়ে দিয়েছিল। এখন তার জামিনের আবেদনের শুনানি দিল্লির হাইকোর্টে হবে। লক্ষণীয় বিষয় হলো যে প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে যে এই পদে থাকাকালীন INX মিডিয়ায়   ২০০৭ সালে ৩০৫ কোটি টাকা নেওয়ার জন্য বিদেশি বিনিয়োগ উৎসাহ বোর্ডের থেকে অনুমতি  দিয়েছিলেন। ের জন্য বৈদেশিক বিনিয়োগ প্রচার বোর্ডের কাছ থেকে অনুমোদন নেওয়া হয়েছিল। অর্থ পাচারের এই মামলায় ইডি, প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রশ্ন তুলছে।