Press "Enter" to skip to content

কার্গিলে পাকিস্তানের রাতের ঘুম কেড়েছিল গুঞ্জন সাক্সেনা, এবার ওনাকে নিয়ে তৈরি হচ্ছে সিনেমা

বলিউডে এখন বায়োপিক এর সফর চলছে। আর সেই ক্রমেই একটি নতুন সিনেমার ঘোষণা হয়ে গেলো। যেখানে জাহ্নবী কাপুর আর পঙ্কজ ত্রিপাঠি মুখ্য অভিনয়ে থাকবেন। সিনেমার নাম ‘গুঞ্জন সাক্সেনাঃ দ্য কার্গিল গার্ল”  কার্গিল যুদ্ধের অনেক বাহাদুর হিরোর নাম আমরা শুনেছি, আর এদের মধ্যেই এক বাহাদুর মহিলা অফিসার ছিলেন, যিনি অদম্য সাহসের পরিচয় দিয়েছিলেন। আর ওনার নাম ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। কার্গিল যুদ্ধে নিজের সাথি শ্রী বিদ্যার সাথে গুঞ্জন সাক্সেনা পাকিস্তানের রাতের ঘুম উড়িয়ে দিয়েছিল। এবার ওনার কাহিনী আমরা বড় পর্দায় দেখতে চলেছি।

দিল্লী বিশ্ববিদ্যালয়ের হংসরাজ কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েট করার পর গুঞ্জন এয়ারফোর্স জয়েন করেন। গুঞ্জন সাক্সেনা আর শ্রী বিদ্যা রাজন সেই ২৫ জন ট্রেনিদের সাথে যুক্ত ছিলেন, যারা ১৯৯৪ সালে ভারতীয় বায়ুসেনার প্রথম ব্যাচে থাকার অবসর পেয়েছিলেন। ১৯৯৯ সালে যখন কার্গিল যুদ্ধ বাধে, তখন এই দুইজন দেশের জন্য কিছু করে দেখানোর সিদ্ধান্ত নেয়। গুঞ্জন এর আগেও ফাইটার জেট উড়িয়েছিলেন। যুদ্ধের সময় ভারতীয় সেনার পাইলটের প্রয়োজন পড়ে, তখন গুঞ্জন আর বিদ্যাকে ওয়ার জোনে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

গুঞ্জনের বয়স যখন মাত্র পাঁচ বছর ছিল, তখন সে প্রথম ফাইটার জেট দেখে। আর তখনই সে ঠিক করে নিয়েছিল যে, সে যুদ্ধ বিমান ওড়াবে। গুঞ্জনের জন্ম এমন পরিবারে হয়েছিল, যেখানে তাঁর বাবা আর তাঁর ভাই সেনায় নিযুক্ত ছিলেন। ছোট বেলা থেকেই দেশের জন্য কিছু করে দেখানোর ইচ্ছে নিয়ে গুঞ্জন সেনায় নাম লেখান। গুঞ্জন সাক্সেনা কার্গিল যুদ্ধের সময় ওনার বাহাদুরি দেখানোর জন্য সরকার ওনাকে শৌর্য পুরস্কার দিয়ে সন্মানিত করে। আর এই পুরস্কার পাওয়া উনিই প্রথম মহিলা ছিলেন।

you're currently offline