Press "Enter" to skip to content

৪০ হাজার সেনা আর ৪৫০ টি ট্যাঙ্ক নিয়ে পাক সীমান্তে নামল ভারতীয় সেনা

জয়সলমেরঃ  পাকিস্তান দুনিয়া জুড়ে ঘুরে ঘুরে ভারতকে একের পর এক হুমকি দিয়ে চলেছে, কিন্তু তাঁরা ভালো করে জানে যে, ভারতীয় সেনার ক্ষমতার কাছে তাঁদের সেনা কিছুই না। আর সেই ক্রমেই ভারতীয় সেনা নিজের মারক ক্ষমতাকে মজবুত করার আরও একটি উদাহরণ পেশ করে ‘সুদর্শন শক্তি” অভ্যাস শুরু করে দিলো। প্রসঙ্গত, ভারতীয় সেনার এমন কিছু যুদ্ধ রণনীতি বাস্তবায়িত করার চেষ্টা জয়সলমের এর মরুভূমিতে করা হচ্ছে। জয়সলমের এর ভারতীয় সেনা বিশেষ ভাবে যুদ্ধ অভ্যাস করছে। এই যুদ্ধ অভ্যাসে বেশিরভাগই আধুনিক হাতিয়ার ব্যাবহার করা হচ্ছে।

পাকিস্তান বর্ডারের মরুভূমিতে চলা এই যুদ্ধ অভ্যাসের নাম ‘সুদর্শন শক্তি” দেওয়া হয়েছে। এটি এই যুদ্ধ অভ্যাসের দ্বিতীয় পার্ট। বৃহস্পতিবার বার থেকেই এই যুদ্ধ অভ্যাস শুরু করেছে সেনা। আগামী ৪ই ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে এই অভ্যাস। সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হল, এই যুদ্ধ অভ্যাসের বায়ুসেনাও অংশ নিয়েছে।

শত্রুপক্ষকে যোগ্য জবাব দেওয়ার জন্য ৪০ হাজারের বেশি সৈনিক এবং ৪৫০ টি ট্যাঙ্ক এই যুদ্ধ অভ্যাসে অংশ নিয়েছে। এই যুদ্ধ অভ্যাসে প্রথমবার ভারতে নির্মিত কে-৯ বজ্র ট্যাঙ্ক নিজের জোরদার ক্ষমতা প্রদর্শন করছে। এই ট্যাঙ্ককে কিছুদিন আগেই ভারতীয় সেনায় যুক্ত করা হয়েছে। এটি ভারতীয় সেনায় সবথেকে বেশি দূরত্বে আঘাত হানা মিসাইল বলে গণ্য হয়েছে। এই ট্যাঙ্ক নিজের ক্ষমতা জাহির করার জন্য কৃত্রিম শত্রু ঘাঁটি গুলোতে অভেদ্য নিশানা বানিয়ে গোটা মরুভূমিতে হাহাকার সৃষ্টি করে দিয়েছে।

শুক্রবার এই অভ্যাসকে রিভিউ করার জন্য ২১ কপ এর জি.সি.ও লেফটিনেন্ট যোগেন্দ্র ডিমরি উপস্থিত ছিলেন। এই যুদ্ধ অভ্যাসের দ্বিতীয় পার্টের অন্তিম ভাগ জয়সলমের এর পোখরাণ ফিল্ড ফায়ারিং রেঞ্জে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে। এই যুদ্ধ অভ্যাসে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং, স্থল সেনা প্রধান এবং অন্যান্য সেনা এবং বায়ুসেনা উচ্চ পদস্থ অফিসারেরা উপস্থিত থাকবেন।

you're currently offline