Press "Enter" to skip to content

ব্রেকিং খবরঃ মুখ পুড়ল মমতার! বিজেপি মহিলা কর্মীকে গ্রেফতার করে সুপ্রিম কোর্টে থাপ্পড় খেলো রাজ্য সরকার

মমতা ব্যানার্জীর (Mamata Banerjee) ফটোশপ করা ছবি ফেসবুকে শেয়ার করে গ্রেফতার হয়েছিলেন বেঙ্গল BJP’র মহিলা কর্মী প্রিয়াঙ্কা শর্মা (Priyanka Sharma)। স্থানীয় তৃণমূল নেতার অভিযোগে BJP’র মহিলা কর্মী প্রিয়াঙ্কা শর্মাকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। এরপর থেকেই বিজেপির রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব তৃণমূল সরকারের এই স্বৈরাচারী সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে।

প্রিয়াঙ্কা শর্মাকে গ্রেফতার করার পর আদালতে যায় BJP নেতৃত্ব। যেহেতু রাজ্যের আদালত বন্ধ, সেহেতু সুপ্রীম কোর্টে এই মামলা ট্রান্সফার হয়। আজ সুপ্রীম কোর্ট এই মামলা নিয়ে রায় দিলো। আপনাদের জানিয়ে রাখি, এর আগে তৃণমূলের কর্মীরা ফেসবুক, টুইটারে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে বহু কুরুচিকর মন্তব্য এবং সুপার ইম্পোজ ছবি পোস্ট করেছেন। কিন্তু তাঁদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নেয়নি রাজ্য সরকার এবং পুলিশ।

তৃণমূলের কর্মী বাদ দিলে দলের সাংসদ ডেরেক ওব্রায়েন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ফটশোপ করা ছবি পোস্ট করে বিতর্ক সৃষ্টি করেছিলেন। কিন্তু তখনও কোন পদক্ষেপ নেয়নি রাজ্য সরকার। উপরন্তু তখন সেটাকে ‘বাক স্বাধীনতা” বলে নিজেদের দোষ ঢাকতে চেয়েছিল তাঁরা।

আজ প্রিয়াঙ্কা শর্মার ফেসবুকের ওই পোস্ট নিয়ে রায় দিলো আদালত। প্রিয়াঙ্কাকে শর্ত সাপেক্ষ জমানত দিয়ে অবিলম্বে তাঁকে মুক্তি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। আদালত জানিয়ে দিয়েছে যে, প্রিয়াঙ্কাকে এই ঘটনার জন্য ক্ষমা চাইতে হবে। আদালতের এই সিদ্ধান্তের পর খুশির হাওয়া বিজেপির মহিলা কর্মী প্রিয়াঙ্কা শর্মার পরিবারে।