সুপ্রিম কোর্টে সেনার বড় জয়! পাথরবাজদের উপর গুলি চালালে জওয়ানদের উপর কোনো FIR দায়ের করা যাবে না।

কাশ্মীরে কট্টরপন্থীরা ভারতীয় সেনার জঙ্গি দমন অপেরাশনে বাধা দেওয়ার জন্য পাথরবাজি করে তথা সেনার উপর পাথর ছুড়ে। সেনা যেইমাত্র কোনো জঙ্গিকে ধরার জন্য ঘাঁটিতে অপেরাশন চালায় তখনই পাথরবাজরা সক্রিয় হয়ে উঠে।পাথরবাজদের থেকে নিজেদের প্রাণ বাঁচানোর জন্য সেনা গুলি চালালে তখন দেশের তথাকথিত বুদ্ধিজীবি ও কিছু বামপন্থী সমর্থকরা পাথরবাজদের সমর্থনে প্রতিবাদ জানাতে নেমে পড়ে। শুধু এই নয়, কিছুজন তো আদালতে সেনার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। এরফলে চরম সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় ভারতীয় সেনার জওয়ানদেরকে। কাশ্মীরে মেহবুবা মুফতির শাসনকালে এমনভাবে বহু সেনাকে ভুগতে হয়েছে।

তবে এবার সুপ্রিম কোর্টে বড় জয় পেয়েছে ভারতীয় সেনা। আসলে মেজর আদিত্য এর উপর দায়ের এক মামলার উপর রায় দিতে গিয়ে বড় সিধান্ত দিয়েছে আদালত। মেজর আদিত্য সরকারি সম্পত্তি ও জওয়ানদের প্রাণ বাঁচানোর জন্য কট্টরপন্থী পাথরবাজদের উপর গুলি চালিয়েছিলেন। যারপর উনার উপর FIR দায়ের করে দেওয়া হয়েছিল।

এই FIR এর প্রতিবাদ করে মেজর আদিত্য সিং এর পিতা লেফটেনেন্ট কর্নেল কর্মভীর সিং আদালতের দারস্ত হন। উনি আদালতে বলেন যে উনার ছেলে যা করেছে ঠিক করেছে তাই এই FIR বাতিল করা হোক। আদালত জানিয়েছে যে এই সমস্ত FIR যেন কোনোভাবেই স্বীকার না করা হয় তার জন্য নোটিস প্রেরণ করতে। যদিও আদালত এখন শেষ সিধান্ত জানায়নি, পরবর্তী শুনানীতে তা জানানো হবে।

মেজর আদিত্য সিং কাশ্মীরের সোপিয়ানতে পাথরবাজের এক বড় ভিড়ের উপর গুলি চালিয়ে ছিলেন যাতে ৩ জন কট্টরপন্থী মারা গেছিলো। এরপরেই সেনার উপর কার্যবাহী করে মেজর আদিত্য সিং এর উপর FIR দায়ের করা হয়েছিল। আদিত্য সিং এর পিতার পিটিশনের উপর শুনানি করতে গিয়ে আদালত স্পষ্ট জানাই যে সেনার উপর কোনো কার্যবাহী করা যাবে না। যদিও কিছু তথাকথিত বুদ্ধিজীবি আদালতের এই সিধান্তে নিন্দা জানিয়ে বলেছেন যে- এই সিধান্তের ফলে কাশ্মীরীদের মানবঅধিকার হরণ হবে।

Leave a Reply

you're currently offline

Open

Close