সুব্রহ্মণ্যম স্বামী মোদীজির ব্যাপারে যা বললেন জানলে আপনিও অবাক হবেন।

শুভ্রমনিয়াম স্বামী যিনি তার স্পষ্টবাদী কথা ও বুদ্ধিমত্তার জন্য পরিচিত তিনি সম্প্রতি বিশ্বের একটা বড়ো নিউজ মিডিয়া হাফিংটন পোস্টের কাছে ইন্টারভিউ দেন। যেখানে স্বামী প্রধানমন্ত্রী মোদী,  এবং হিন্দুত্ব নিয়ে কথা বলেন। ইন্টারভিউতে   যেসব প্রশ্ন করা হয়েছিল তার কয়েকটা আপনাদের কাছে তুলে ধরবো।

নির্বাচন কে জিতেছে বিজেপি না মোদী?

আসলে এই প্রশ্নের কারণ হলো নরেন্দ্র মোদী যখন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার আগে প্রচারে যেতেন তখন বিজেপির নামের থেকে বেশি প্রচার মোদী নামের হতো। এমনকি ব্যানার প্রচারেও ‘বিজেপি সরকার’ এর বদলে ‘মোদী সরকার’ নাম ব্যাবহৃত হতো। আর এই কারণেই প্রশ্নটি করা হয়েছিল। উত্তরে স্বামী বলেন, ‘আমরা মোদীজিকে ছাড়া কিছু করতে পারতাম না। উনি খুবই নামী, বিখ্যাত, ভালো স্বভাব সম্পন্ন ভালো একজন ব্যাক্তি। উনি বিজেপির অনেক প্রচার করেছিলেন কিন্তু সেগুলো যথেষ্ট ছিল না। তাই আমি বলবো  মোদী, হিন্দুত্ব এবং দুর্নীতির বিরোধিতা আমাদের জয়ী করেছে।’
উনি উত্তরের মধ্যে দিয়ে বুঝিয়ে দেন মোদীজির নাম  বিজেপিকে জিততে সাহায্য করেছে।

কংগ্রেসমুক্ত ভারত গঠনের দিকে কতটা এগিয়েছেন?

উত্তরে স্বামীজি বলেন  তারা(কংগ্রেস) নিজেই এই কাজের দায়িত্ব নিয়েছে। এই রকম পদ্ধতি কোথাও দেখা যায় না যেখানে একটা মাত্র পরিবার থেকেই সমস্থ নেতা সরবরাহ হয়। দেশের সমস্থ প্রান্ত থেকে আসা মানুষদের আমাদের প্রয়োজন যারা জীবনের বিভিন্ন অবস্থা থেকে উঠে এসেছে একটা নিদিষ্ট পরিবার থেকে নয়।

মোদী ছাড়া বিজেপিকে নেতৃত্ব দেওয়ার মতো কে আছে? মোদীজির অবসরের পর বিজেপি পার্টির কি হবে?

উত্তরে স্বামী কংগ্রেসকে কটাক্ষ করে বলেন, মোদী কোনো পরিবার নয় যা বিজেপিকে পরিচালনা করে। আমাদের কেউ না কেউ প্রস্তুত থাকবে দায়িত্ব গ্রহণের জন্য। এই প্রশ্ন তখন করা হয়েছিল যখন অটল বিহারিজি বিজেপিকে নেতৃত্ব দিতেন।  আমদের পার্টি একটা পুলের মতো এখানে এমন কিছুজন আছে যারা নিজের সবার সামনে প্রকাশ না করেই কাজ করে।

আপনি কি ‘লাভ জিহাদ’ এর ব্যাপারে বিশ্বাসী?

স্বামীজি উত্তরে বলেন ‘লাভ জিহাদ’ থিওরি আমি আবিষ্কার করিনি। এই সত্যের উদঘাটন করেছিলেন ‘কেরালা হাই কোর্ট’। সেখান থেকে মানুষ ব্যাপারটা বুঝতে পারে। যদি প্রশ্ন হয় যে বর্তমানে কি লাভ জিহাদ করা হচ্ছে? তাহলে উত্তর হবে হ্যাঁ।

Open

Close