Press "Enter" to skip to content

দারুন খবর – ” ধন্যবাদ হিন্দুত্ববাদকে, যার জন্য ভারতে আতঙ্কবাদ প্রবেশ করতে পারেনি” – চীন মিডিয়া।

ের বামপন্থীরা দিনরাত হিন্দুত্বের বদনাম করে কিন্তু ীয় বামপন্থীদের পিতা হিন্দুত্বের ব্যাপারে সম্পূর্ণ অন্য মনোভাব রাখে। ি মিডিয়ার বক্তব্য “সৌভাগ্য যে ে হিন্দুত্ববাদ রয়েছে।” চিনী মিডিয়ায় অনুযায়ী ে যদি হিন্দুত্ববাদ না থাকত তাহলে সিরিয়া, ইরাক এর মতো কট্টরপন্থী ইসলামিক দেশে পরিণত হতো। এরফলে চীনের পাশে এমন একটা দেশ থাকতো যার জন্য চীন দেশের সুরক্ষার উপর ভয় থাকতো। কিন্তু ে হিন্দুত্ববাদ থাকার জন্যেই ইসলামিক কট্টরপন্থী ক্ষমতা দেশের উপর কবজা করতে পারেনি। হিন্দুত্ববাদের জন্যেই রয়েছে নাহলে আতঙ্কবাদ, কট্টরপন্থার কারখানায় পরিণত হতো।

আরো পড়ুন – মুকুল রায়ের মাস্টারস্ট্রোক ! এবার তৃণমূলের এক বড় সংগঠনে থাবা বসাতে চলেছেন মুকুল রায়

চীন গ্লোবাল টাইমস এ হিন্দুত্ব এর উপর একটা আর্টিকেল পর্যন্ত লিখেছে। জানিয়ে দি গ্লোবাল টাইমস চীনের সবথেকে বড়ো ের কাগজ। গ্লোবাল টাইমসের একটা আর্টিকেলে লেখা হয়েছে, ভারতে মুসলিম জনসংখ্যা অন্য দেশের তুলনায় অনেক বেশি রয়েছে তা সত্ত্বেও ভারতের পরিস্থিতি খুব ভালো রয়েছে। থাইল্যান্ড এর দক্ষিণ অংশে প্রত্যেক সপ্তাহে আতঙ্কবাদী হামলা হয়, ফিলিপাইন এর দক্ষিণে ISIS এর গড় হয়ে রয়েছে।

এই সমস্থ স্থান ভারতের থেকে অনেক কম মুসলিম বসবাস করে তা সত্ত্বেও আতঙ্কবাদ কম হয়। এমনটাই লেখা হয়েছে গ্লোবাল টাইমস এর আর্টিকেলে। গ্লোবাল টাইমস এ লেখা হয়েছে, ভারতে হিন্দুত্ববাদ রয়েছে বলেই অন্য এলাকার মতো ওই দেশে আতঙ্কবাদ বা ধর্মীয় কট্টরতা ছড়িয়ে পড়েনি। হিন্দুত্ব থাকার জন্য ধার্মিক কট্টরপন্থী নিয়ন্ত্রণ এ আছে নতুবা ভারত আতঙ্কবাদীর কেন্দ্র হতো।

আরো পড়ুন – ব্রেকিং খবর: সুপ্রিম কোর্টে হিন্দুদের বড়ো জয়! দীপাবলীতে পটকা/বাজির উপর ব্যান চাওয়া বুদ্ধিজীবীদের মুখে ঝামা ঘষে দিলো আদালত।

চীনের থেকে একটা কথা পরিস্কার যে চীন এটা স্বীকার করে যে হিন্দুত্ব এর জন্যেই ভারত এখনো ইসলামিক দেশে পরিণত হয়নি। অন্যদিকে দেশের ও সেকুলাররা হিন্দুত্বের বিরোধ করে এবং দিনরাত গালাগালি করে।