Press "Enter" to skip to content

এবার রাজস্থানে দুধের চেয়ে বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে গোমূত্র ! কারণ জানলে অবাক হবেন।

হিন্দু ধর্মে গো মাতার পূজা করা হয় এবং গোদুগ্ধকে অমৃত মনে করা পান করা হয়। তাই গরুর দুধের অনেক চাহিদা বর্তমান সমাজে। কিন্তু মজার বিষয় এটাই হল যে এখন রাজস্থানে গরুর দুধের চেয়ে অনেক বেশি মূল্য গোমূএের। দিন দিন বেড়েইই চলেছে এই গোমূএের দাম। জানেন কত টাকা লিটারে বিক্রি হচ্ছে এই গোমূত্র? প্রায় ৩০ টাকা প্রতি লিটার। এখন এই গোমূএের চাহিদা রাজস্থানের বাজারে আকাশছোঁয়া। তাই এর চাহিদা মেটাতে এখন গোশালার লোকেরা ব্যাস্ত হয়ে পরেছেন গোমূএ সংগ্রহ করার জন্য। এখন দুধের চেয়ে গোমূএের চাহিদা বেশি হওয়ায় গোপালকরা প্রতিদিন রাত জেগে গোমূএ সংগ্রহ করছে। কারন তারা ভালো ভাবেই জানেন যে সকাল হলেই এই গোমূত্র চড়া দামে বিক্রি হবে। এই গোমূএ বিক্রি করেই তারা মুনাফা লাভ করতে পারবে। কোথাও কোথাও আবার এই গোমূত্রের দাম ৩০ টাকা ছাড়িয়ে ৫০ — ৬০ টাকা অব্দি হয়ে যাচ্ছে।

তাই এখন রাজস্থানের বাজার চরম ব্যাস্ত এই গোমূত্র নিয়ে। কিন্তু কেন গোমূত্রের চাহিদা হঠাৎ এত বেড়ে গেল? আসুন দেখে নেওয়া যাক। আসলে গোশালায় কর্মচারীরা খুব যত্ন সহকারে কাজ করতো কিন্তু মুনাফা হিসাবে শুধুমাত্র তারা গরুর দুধটুকু পেত। কিন্তু এখন গোমূত্র যেটা পুরোটাই নষ্ট হত সেটাও সোনা ফলাচ্ছে। বাজারে সেটার চাহিদা অনেক বেশি। একটা বড় সংস্থা এই গোমূত্র কিনছে কারন এখন জমিজমাতে নানা রকম পতঙ্গ এবং ক্ষতির হাত থেকে বাঁচবে বলে। এখন তারা জমিতে রাসায়নিকের বদলে গোমূত্র ব্যাবহার করবে। তাই জমির ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে তাদের এখন একমাত্র সম্বল হল এই গোমূত্র।

এই সব নানান কারনের জন্যই এখন চড়া দামে গোমূত্র কিনছে তারা। তাই এখন বাজারে এর চাহিদা অনেক গুন বেড়ে গেছে এবং এর ফলে গোপালকরা খুব লাভবান হচ্ছেন। এখন মহারাণা প্রতাপ ইউনিভার্সিটি অফ এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজি অরগ্যানিক ফার্মিংয়ের প্রজেক্ট নিয়েছে যেটা রাজস্থানের উদয়পুরে অবস্থিত। এই সংস্থাটি তাদের পরিক্ষার জন্য প্রতিমাসে প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ লিটার গোমূত্র ব্যাবহার করছেন।

সরকারিভাবে গড়ে উঠা এই প্রযুক্তির জন্য যতটা পরিমান গোমূত্রের প্রয়োজন সেই সব মূত্রের চাহিদা মেটানোর দায়িত্ব এখন রাজ্যের গোপালকদের উপর। এর ফলে যেমন গোপালকরা গোমূত্র বিক্রি করে লাভের মুখ দেখছেন তেমনি অন্য দিকে রাসায়নিক মুক্ত ফসল পাচ্ছেন সেখানকার লোকেরা।আপনাদের জানিয়ে রাখি গোমূত্র যে শুধু কীটনাশকের কাজে ব্যবহৃত হয় তাই নয় একই সাথে গোমূত্র কিছু ওষুধ তৈরিতেও ব্যাবহৃত হয়। আর এই গোমূত্র ব্যাবহারে চাষিরা কম খরচে চাষ করতে পাচ্ছেন। ফলে লাভবান হচ্ছেন সকলেই।
#অগ্নিপুত্র