এবার সাধু সন্ন্যাসীদের চরম কটূক্তি করে হিন্দু ধর্মের অপমান করলেন তৃণমূলের এই নেতা

সামনেই লোকসভা ভোট আর সেই নিয়েই প্রচারে মেতে রয়েছেন দেশের সমস্ত নেতা নেত্রীরা। সেই সুত্রে আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী সবার আগে। উনি অক্লান্ত পরিশ্রম করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে গিয়ে মানুষের সাথে কথা বলছেন। গত ৫৫ মাসে মোদী সরকার কি কি করেছেন সেটা সবাইকে জানাচ্ছেন। এমনকি নতুন প্রক্লপের শিলন্যাস এবং উদ্বোধন করছেন উনি।

তৃণমূল নেতা উত্তম মুখোপাধ্যায়। নরেন্দ্র মোদী এবং ইসকনের সন্ন্যাসী

সেই সুত্রে গত ২রা ফেব্রুয়ারি এরাজ্যে এসেছিলেন আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি এসে প্রথমে বনগাঁর ঠাকুর নগরে সভা করেন। সভার আগে মতুয়া সম্প্রদায়ের ধর্মগুরু বড়মার চরণ ছুঁয়ে আশীর্বাদ নেন তিনি। তারপর সেখান থেকে সোজা চলে জান বর্ধমানের দুর্গাপুরে।

দুর্গাপুরে গিয়ে নেহেরু স্টেডিয়ামে লাখো লাখো মানুষের সামনে নিজের বক্তব্য পেশ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেখান থেকে তৃণমূল নেত্রী সমেত গোট দলকেই তীব্র আক্রমণ করেন উনি। এরাজ্যে কেমন ভাবে সিন্ডিকেট রাজ চলছে সেটা নিয়েও দুঃখ প্রকাশ করেন উনি।

উত্তম মুখোপাধ্যায় TMC Leader

নরেন্দ্র মোদীর ওই সভায় ইসকন মন্দিরের কয়েকজন সন্ন্যাসী উপস্থিত ছিলেন। আমাদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী হিন্দুদের হৃদয় সম্রাট। ওনার সভায় হিন্দু সন্ন্যাসীদের উপস্থিত থাকতেই পারেন। যেমন তৃণমূলের সভায় মুসলিম নেতা বরকতি আর তহ্বা সিদ্দিকি উপস্থিত থাকেন।

কিন্তু হিন্দু হৃদয় সম্রাটের সভায় হিন্দু সন্ন্যাসী উপস্থিত হলেই বিরোধী দলের গা জ্বলে ওঠে। তেমনই কিছু ঘটে গেলো সেদিন। ওই সভায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর গীতা উপহার দেওয়ার জন্য মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন ইসকন এর কয়েকজন সন্ন্যসী। সেই জিনিষটা দৃষ্টিকটু লাগে তৃণমূল নেতা উত্তম মুখোপাধ্যায় এর।

তিনি ওই সন্ন্যাসীদের কটূক্তি করে বলেন, ‘ওরা প্রকৃত সন্ন্যাসী না। ওরা চিলি চিকেন খায়। তাঁরা ভন্ড” এইভাবেই নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করতে গিয়ে গোটা হিন্দু ধর্মকেই আক্রমণ করে বসেন তৃণমূল নেতা উত্তম মুখোপাধ্যায়। যদিও পরে তিনি ঠ্যালায় পরে দুর্গাপুর ইসকন মন্দিরে গিয়ে ক্ষমা চান।

কিন্তু তিনি রাগের বসে নিজের মনের কথাটাই বলেছেন। আর মুখ থেকে বেড়িয়ে যাওয়া কথা কি ফেরত নেওয়া যায়? উনি সেদিন এই কথা ইসকন না বলে অন্য কোন ধর্মের মানুষকে বলতে পারতেন তো? আসলে তৃণমূল দলের সব নেতাই ভোট ব্যাংকের খাতিরে বারবার হিন্দুদের অপমান করে আসছেন। এটা নতুন কিছু না। তৃণমূলের মনে হিন্দুদের নিয়ে কোন ভক্তি নেই।

One Comment

Leave a Reply

you're currently offline

Open

Close