Press "Enter" to skip to content

ফল ঘোষণা হওয়ার পরেই বড়সড় ধস তৃণমূলে! শতাধিক নেতা কর্মী নাম লেখালেন বিজেপিতে

২৩ শে মে তৃণমূল সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর স্বপ্ন ভেঙে চুরমার হয়েছে। উনি মোদী বিরোধী মঞ্চের প্রধান মুখ হয়ে উঠেছিলেন। এমনকি প্রধানমন্ত্রীও হবেন ভেবেছিলেন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী হওয়া দূরের কথা। রাজ্যে ৪২ এ বিয়াল্লিশ আসন দখল করার স্বপ্নটাও পূরণ করতে পারেননি। এমনকি বিজেপিকে গোটা দেশে ১০০ আসনের মধ্যে বেঁধে রাখার স্বপ্নও পূরণ করতে পারেননি। উপরন্তু বিজেপি এরাজ্যে অভাবনীয় ফল করে ১৮ টি আসন দখল করতে সফল হয়েছে। আর বিজেপির এই সফলতাই ভাবাচ্ছে তৃণমূল নেতৃত্বকে। ২৩ শে মে ৩০৩ আসন দখল করে ইতিহাস গড়েছেন নরেন্দ্র মোদী। ভেঙে চুরমার হয়েছে ২২ জন নেতার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন। এবার ধীরে ধীরে পশ্চিমবঙ্গ দখলের দিকে এগোচ্ছে বিজেপি।

শ্রীরামপুরে নির্বাচনী প্রচারে এসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন এরাজ্যের ৫০ জন বিধায়ক বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জন্য মুখিয়ে আছেন। এমনকি বঙ্গ বিজেপির নেতা মুকুল রায়ও সেইরকম কিছু আভাস দিয়েছিলেন। আর সেই ক্রমেই আজ জঙ্গলমহলে বড়সড় ধস নামলো তৃণমূলে।

জঙ্গলমহলের গড়বেতায় কাতারে কাতারে মানুষ বিজেপির দলীয় অফিসে গিয়ে গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নেন। তৃণমূল ছেড়ে সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া নেতা, কর্মীরা জানিয়েছেন। তারা নরেন্দ্র মোদির উন্নয়ন যজ্ঞে শামিল হতে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে নাম লেখালেন। তাঁদের কথা অনুযায়ী, তৃণমূল সরকারের আমলে জঙ্গলমহলের কোনো উন্নয়ন হয়নি। তাই তাঁরা তৃণমূল নেতা, নেত্রীদের উপরে আস্থা হারিয়েছে। আর এইজন্যই তাঁরা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে নাম লেখালেন।

you're currently offline