Press "Enter" to skip to content

জ্বলছে সন্দেশখালি, আর বিদেশে বিয়ে নিয়ে মত্ত তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান!

একেবারে ডেসটিনেশন ওয়েডিং। বলিউডে এটা মামুলি ব্যাপার হলেও, টলিউড নায়িকা তথা বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ সম্ভবত বাংলায় এই নিয়ম উনিই প্রথম চালু করলেন। এক সপ্তাহ পরেই বিয়ে হতে চলেছে নুসরত আর নিখিল জৈনের। প্রথমে শোনা যাচ্ছিল এই বিয়ে হবে ইস্তানবুলে। কিন্তু ডেসটিনেশন চেঞ্জ। এই বিয়ে হতে চলেছে তুরস্ক দেশের বোদরুম নামে এক সুন্দর শহরে। হয়ত বিয়েটা এই ভারতের পশ্চিমবঙ্গেই হত। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি মতো কলকাতা লন্ডন হয়নি আর দারজিলিংও সুইজারল্যান্ড হয়নি। এমনকি দীঘাও গোয়া হয়ে যায়নি। অগত্যা দীপুদা-এর ভরসা ছেড়ে বিদেশে বিয়ে করতে যাচ্ছেন অভিনেত্রী তথা সাংসদ নুসরত জাহান।

ভোটের আগে তৃণমূলের প্রার্থী নুসরত জাহান প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে, সুখে দুঃখে বসিরহাটের মানুষের পাশেই থাকবেন তিনি। আর ভোট শেষ হতে না হতেই ওনার প্রতিশ্রুতি ভুলে গেছেন তিনি। গত শনিবার বসিরহাট লোকসভা অন্তর্গত সন্দেশখালিতে বিজেপির পতাকা লাগানো কে কেন্দ্র করে তৃণমূল বিজেপির তুমুল সংঘর্ষ বাধে। দুই পক্ষের সংঘর্ষে খুন হন বিজেপির চার কর্মী। এখনো চার কর্মীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা বলেই খবর।

তৃণমূলের নেতা শেখ শাহাজাহানের নেতৃত্বে চলা তাণ্ডবের জেরে অই এলাকার হিন্দুরা একে একে প্রাণ ভয়ে ঘরবাড়ি ছেড়ে পালাচ্ছেন। কিন্তু মাননীয়া সাংসদ অসহায় হিন্দু আর এলাকাবাসীদের পাশে না দাঁড়িয়ে বিদেশে যাচ্ছেন বিয়ে করতে।

এর আগে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে আসা তৃণমূলের সাংসদ ব্রিগেড থেকে অভিযোগ করে বলেছিলেন। তৃণমূলের তারকা প্রার্থীদের কোন কাজ করতে দেয়না দল। তাঁরা শুধু খালি কাগজে সই করে খালাস। বাকিটা তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জী বুঝে নেন। অনুপম হাজরার এই বক্তব্য এবার সত্যি প্রমাণিত হল। নুসরত জাহানকে কাজ করার জন্য প্রার্থী করেছিল না তৃণমূল। ওনাকে শুধু ভোট টানার জন্যই প্রার্থী করা হয়েছিল। আর এই জন্যই ভোট শেষ হতেই, উনি অসহায় মানুষদের পাশে না দাঁড়িয়ে বিদেশে যাচ্ছেন বিয়ে করতে।