Press "Enter" to skip to content

প্রকাশ্যে পাকিস্তানের জয়গান তৃণমূল সমর্থকের! প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে আপত্তিকর ছবি পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায়

তৃণমূলের সাথে পাকিস্তানের কানেকশন আছে এটা আগাগোড়াই বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়ে। এর আগেও বেশ কয়েকজন তৃণমূল সমর্থককে সোশ্যাল মিডিয়ায় পাকিস্তানের পক্ষে হয়ে কথা বলতে দেখা গেছে। এমনকি কিছুদিন আগে পশ্চিমবঙ্গের এক সিভিক ভলান্টিয়ারকে ফেসবুকে পাকিস্তানের সমর্থন করে কথা বলতে দেখা গেছে। এবার আরও এক তৃণমূল সমর্থককে প্রকাশ্যে পাকিস্তানের জয়গান করতে দেখা গেলো।

এর আগে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক এবং বালাকোট এয়ার স্ট্রাইক নিয়ে প্রশ্ন তুলতে দেখা গেছে তৃণমূলকে। এমনকি তৃণমূল সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী বালাকোট এয়ার স্ট্রাইকের প্রমাণ চেয়ে বিতর্কের ঝড় তুলে দিয়েছিলেন। এমনকি ২০১৯ এর লোকসভা ভোটের প্রচারে অনেক তৃণমূল নেতা/নেত্রীকে বালাকোট এয়ার স্ট্রাইককে ভুয়ো বলে আখ্যা দিয়েছিলেন।

এমনকি তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী পুলওয়ামা হামলার পর পাকিস্তানকে ক্লিনচিট দিয়ে বলেছিলেন যে, এই হামলার পিছনে ওদের হাত রয়েছে সেটা তদন্ত না করে বলা উচিত না। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী এবং তৃণমূল দলের এহেন মন্তব্য এবং আচরণের জন্য রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি তাঁদের উপর সংখ্যালঘু ভোট ব্যাঙ্ক সুরক্ষিত রাখার জন্য পাকিস্তানের পক্ষ নেওয়ার অভিযোগ তুলে থাকে।

এবার সেই তৃণমূল দলেরই এক সমর্থক সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারত তথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করে বিতর্কের সৃষ্টি করল। তৃণমূল এবং এর সমর্থক Raj Khan সোশ্যাল মিডিয়ায় নরেন্দ্র মোদীর বিরোধিতা করে পাকিস্তানের জয়গান করে বসেন। ডায়মন্ড হারবারের বাসিন্দা রাজ খান এর সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট এখন ভাইরাল।

তিনি একটি ছবি পোস্ট করেছেন, যেখানে কোন একটি বলিউড সিনেমার দৃশ্যকে ফটোশপ করে দেখানো হয়েছে যে, পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে মারছে। এমনকি তিনি ওই ছবির ক্যাপশন দিয়েছেন ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ”। ওনার এই পোস্ট ১৫ই সেপ্টেম্বর ২০১৯ এ সন্ধ্যে ৬ টা নাগাদ করা হয়েছে। আর তারপর থেকেই ওনার ছবি এবং প্রোফাইল সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে। এখন অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন, প্রিয়াঙ্কা চোপরার ছবির সাথে মমতা ব্যানার্জীর ছবি ফটোশপ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করলে যদি কাউকে গ্রেফতার করা হয়। তাহলে ভারতের দুর্নাম আর পাকিস্তানের জয় গান করলে গেফতার করা হবে না কেন?