Press "Enter" to skip to content

পাঁচদিনেই মোহভঙ্গ! শহীদ দিবসের আগেই ফের বিজেপিতে যোগ দিলেন পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য

গত ১৫ই জুলাই ভুল বুঝিয়ে বিজেপি থেকে তৃণমূলে নিয়ে গেছিল দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলা সভাপতি অর্পিতা ঘোষ। পাঁচদিন যেতে না যেতেই ভুল শুধরে ফের বিজেপিতেই ফিরে এলেন বালুরঘাটের চিঙ্গিসপুর পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য পঞ্চমি বর্মন। তৃণমূলের শহীদ দিবসের একদিন আগে এই ঘটনার বেশ ব্যাকফুটে তৃণমূল নেতৃত্ব। এমনকি দক্ষিণ দিনাজপুরের তৃণমূলের জেলা সভপতি অর্পিতা ঘোষের ভূমিকা নিয়ে দলের অন্দরেই উঠছে নানান প্রশ্ন।

গত ১৫ জুলাই অর্পিতা ঘোষের হাত ধরে বিজেপি ছেড়ে তৃনমূলে যোগ দিয়েছিলেন বালুরঘাটের চিঙ্গিশপুর পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য পঞ্চমী বর্মন। বিজেপির এক পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যাকে দলে টেনে নিয়ে ওই এলাকা থেকে ধীরে ধীরে বিজেপিকে মুছে দেওয়ার ডাকও দিয়েছিলেন অর্পিতা ঘোষ। কিন্তু ওনার সমস্ত পরিকল্পনায় জল ঢেলে দিলে দক্ষিণ দিনাজপুরের বিজেপি সভাপতি শুভেন্দু সরকার। এদিন জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকারের হাত ধরে ফের বিজেপিতে ফিরে আসেন বালুরঘাটের চিঙ্গিশপুর পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য পঞ্চমী বর্মন।

বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর পঞ্চমী বর্মন জানান, ওনাকে ভুল বুঝিয়ে বিজেপি থেকে তৃণমূলে নিয়ে গেছিলেন অর্পিতা ঘোষ। কিন্তু নিজের ভুল শুধরে ফের বিজেপিতে চলে আসেন তিনি। একটি সাংবাদিক সন্মেলনের মধ্যে দিয়ে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বিজেপি সভাপতি শুভেন্দু সরকার জানান, ‘বিজেপি ছেড়ে কেউ তৃণমূলে যাচ্ছে না। যারা আগে বিজেপি করত, তাঁরা এখনো বিজেপিই করছে। এবং ভবিষ্যতেও বিজেপিই করবে।”

তিনি আরও বলেন, ‘তৃণমূলের উচিত নিজের দল নিয়ে ভাবনা চিন্তা করা। কারণ বিজেপি ছেড়ে কেউ ডুবন্ত নৌকা তৃণমূলে যাবেনা। কিন্তু তৃণমূল ছেড়ে সবাই বিজেপিতে চলে আসবে। তৃণমূলে গণতন্ত্র নেই। সন্ত্রাস আর দুষ্কৃতীতে ভরে গেছে দল। তৃণমূলের নেতারা এখন ভুল বুঝিয়ে বিজেপির নেতা কর্মীদের তাঁদের দলে টানতে চাইছে, কিন্তু তাঁদের এই মনস্কামনা পূরণ হবেনা।”

you're currently offline