Press "Enter" to skip to content

এবার এই জেলায় তৃণমূল থেকে পদত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দিলেন ৫০০ জন সক্রিয় নেতা কর্মী ।

বর্তমানে আমাদের দেশের রাজনীতিতে অন্যপার্টি ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়াটা হয়ে উঠেছ নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনা। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে প্রায় রোজকার ঘটনা হয়ে উঠেছে দলবদল। এখন সব দল ছেড়ে অন্য দলের নেতাকর্মীরা ঝুঁকে পড়ছেন বিজেপির দিকে। ধীরে ধীরে বিজেপির দিকে এই ভাবে ঝুঁকে পড়ার একমাত্র কারন হিসাবে উঠে আসছে বিজেপির দেশপ্রেম। যদিও এই ধরণের সমস্ত সংবাদ এড়িয়ে চলছে রাজ্যের সংবাদ মাধ্যমগুলি। যেভাবে দেশের জন্য কাজ করে চলেছে সেটা দেখেই এখন বিরোধীরা বিজেপির বিরোধীতা ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করছেন। বিশেষজ্ঞদের অনুসারে, বিজেপির নীতি ও নিষ্ঠা দলের জন্ম থেকে একই রকমের রয়েছে যার জন্য দলে দলে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার প্রবণতা বাড়ছে মানুষের মধ্যে।

আর এই কারণেই আজ বিজেপি বিশ্বের সবথেকে বড় রাজনৈতিক সংগঠনে পরিণত হয়েছে বলে মত রাজনৈতিক বিচক্ষণদের। তাই দেশের সব প্রান্ত থেকেই মানুষ এখন বিজেপিতে চলে আসছে। পিছিয়ে নেই আমাদের রাজ্য পশ্চিমবঙ্গও। অন্য সবাইকে টেক্কা দিয়ে আমাদের রাজ্যের সবথেকে বেশি মানুষ এখন যোগদান দিচ্ছেন বিজেপিতে। আমাদের রাজ্যের কংগ্রেসে ফের একবার ভাঙন দেখা দিল। এবার আর গুটি কয়েকজন নয়। একেবারে ৫০০ জন তৃনমূলের নেতাকর্মী তৃনমূল ছেড়ে যোগদান দিলেন বিজেপিতে।

সেইসব নেতাকর্মীদের মধ্যে আছেন তৃনমূলের নাম করা কয়েকজন নেতাও। তারাও তৃনমূল ছেড়ে বিজেপির উপর ভরসা রাখলেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধান। এছাড়াও রয়েছেন বেশ কয়েকজন এমন নেতাকর্মী যারা এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃনমূলের হয়ে লড়াই করেছেন এবং জয়লাভ করেছেন। তাদের সেই সমস্ত এলাকাতে ভালো প্রভাব রয়েছে। এলাকায় এই কর্মীদের দাপট ও জনসংযোজ বেশ ভালোরকমের যা এবার সম্পূর্নভাবে বিজেপির হাতে মুঠোয় চলে এসেছে।

দল পরিবর্তনের এই ঘটনাটি ঘটেছে মগরাহাট পূর্ব বিধানসভার অন্তভুক্ত ধানপোতা গ্রাম পঞ্চায়েতে যেটা রয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায়। দক্ষিণ ২৪ পরগনা সাংগঠনিক জেলায় বিজেপির কার্যালয়ে দলবদলের এই অনুষ্ঠানটি হয় বুধবার। সেখানেই দলের কিছু প্রভাবশালী নেতার উপস্থিতিতে তৃনমূল ছেড়ে আসা পাঁচশোজন কর্মী বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নেয়। মনে করা হচ্ছে অন্যদলের দুর্নীতি ও তোষণ নীতি থেকে অতিষ্ঠ হয়েই বিজেপিতে যোগ করেছেন এই সক্রিয় কার্যকর্তারা।
#অগ্নিপুত্র