Press "Enter" to skip to content

জম্মু কাশ্মীরের কাঠুয়ায় গ্রেফতার তিন জঙ্গি, উদ্ধার করা হল ছয়টি একে-৫৬ ও একে-৪৭ রাইফেলস

বৃহস্পতিবার জম্মু কাশ্মীরের কাঠুয়ায় বড়সড় সাফলতা পেলো পুলিশ। সেখানে হাতিয়ার আর বিস্ফোটক পদার্থ বহন করা একটি ট্রাককে আটক করে পুলিশ। এক বরিষ্ঠ পুলিশ আধিকারিক জানান, জম্মু কাশ্মীরের কাঠুয়া থেকে ছয়টি আগ্নেয়াস্ত্রর সাথে তিনজন সন্ত্রাসবাদীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার পর থেকেই পাকিস্তান এবং পাকিস্তান সমর্থিত জঙ্গি সংগঠন জম্মু কাশ্মীরের পরিস্থিতি খারাপ করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। আর সেই নিয়েই তদন্তকারী সংস্থা গুলোর গোপন রিপোর্ট পায় যে, একটি ট্রাক হাতিয়ার নিয়ে যাচ্ছে। এরপর পুলিশ ওই ট্রাককে ধাওয়া করে সমস্ত হাতিয়ার বাজেয়াপ্ত করে।

এই তল্লাশিতে তিন জঙ্গি এবং তাঁদের থেকে চারটি একে-৫৬ এবং দুটি একে-৪৭ রাইফেল উদ্ধার করা হয়। ওই জঙ্গিদের পাঞ্জাব- জম্মু – কাশ্মীর বর্ডারের লক্ষণপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, জম্মু কাশ্মীর জাতীয় সড়কে সকাল আটটা নাগাদ একটি ট্রাককে আটক করা হয়। তল্লাশির সময় ওই ট্রাক থেকে চারটি একে-৫৬ এবং দুটি একে-৪৭ রাইফেল উদ্ধার করা হয়। পুলিশ জানায় যে, ওই ট্রাকটি পাঞ্জাবের বাময়াল থেকে কাশ্মীরের দিকে যাচ্ছিল।

এসএসপি কাঠুয়া শ্রীধর প্যাটেলের অঞ্জায়ি, ধৃত জঙ্গিদের কাছ থেকে চারটি একে-৫৬ এবং দুটি একে-৪৭ রাইফেল এবং ছয়টি ম্যাগাজিন উদ্ধার করা হয়েছে। এর সাথে ১৮০ টি কারতুসও উদ্ধার করা হয়েছে। উনি বলেন, ধৃত জঙ্গিদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সব জঙ্গিরা জইশ এ মোহম্মদ জঙ্গি সংগঠনের সাথে যুক্ত। আইজিপি অনুযায়ী, আটক করা ট্রাকের তদন্ত করা হচ্ছে। ধৃত সমস্ত জঙ্গিই কাশ্মীরের বাসিন্দা। শোনা যাচ্ছে যে, এই জঙ্গিরা কাশ্মীরে সক্রিয় জঙ্গি সংগঠন গুলোর সাহায্যের জন্য পাঠানকোট থেকে বাময়াল সীমান্ত দিয়ে আন্তর্জাতিক সীমা হয়ে ঢোকার চেষ্টা করছিল।

you're currently offline