Press "Enter" to skip to content

মোদী সরকারের এক সিদ্ধান্তে খুশির হাওয়া দেশের বেকারত্ব মহলে! নতুন বছরে সরকার দিতে চলেছে বহুমূল্য উপহার।

এই সময় দেশের নির্বাচনী মহল বেশ গরম হয়ে রয়েছে। সাধারণত, ভারতের জনগণ ভোটের আগে প্রাপ্ত ও বিনা মূল্যে পরিষেবা পাওয়ার ভিত্তিতে ভোট প্রদান করে। তাই দেশের বিকাশ কাজ যতই হোক না কেন, ভোটে জেতার জন্য প্রত্যেক পার্টিকে ভোটের নতুন করে পরিকল্পনা করতে হয়। সম্প্রতি ৫ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে এবং এখন লোকসভা নির্বাচনের আসন্ন প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। ২০১৯ এর লোকসভা নিয়ে সমস্ত দল কোমর বেঁধে মাঠে নেমে পড়েছে, সমস্থ নেতারা প্রচার কার্যে ব্যাস্ত হয়ে পড়েছে। কিন্ত এখন দেশের নজর সবথেকে বড় পার্টি বিজেপির উপর। কারণ ৩ রাজ্যে বিধান সভায় হারের সম্মুখীন হওয়ার পর বিজেপি এখন যেকোনো ভাবে লোকসভা নির্বাচন জিততে চাইছে। লোকসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রত্যেক পার্টি নতুন পরিকল্পনা করে রেখেছে।

মোদী সরকারও কিছু যোজনা তৈরি করে রেখেছে যা কৃষক ও রোজকার বিহীন যুবকদের জন্য খুবই উল্লেখযোগ্য। যেহেতু দেশের সবথেকে বড় দুটি সমস্যা কৃষকদের আয় এবং বেকারদের চাকরি তাই এই দুটি ইস্যুর উপর পরিকল্পনা করতে চলেছে। মোদীজির নেতৃত্বে সরকার সমস্থ মন্ত্রণালয়ের সাথে ইউনিভার্সাল বেসিক ইনকাম(UBI) নিয়ে বৈঠক করতে চলেছে। এই ইস্যুতে বৈঠকের পর অর্থমন্ত্রী অরুন জেটলি একটা বড় ঘোষণা তার অন্তিম বাজেটে করতে পারেন।

বিজেপি কোনো ভাবেই পরবর্তী নির্বাচন হারতে চাই না, এই কারণে UBI এর উপর শীঘ্রই মোহর লাগানো হতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে। এই যোজনা চালু হলে দেশের একটা বড় বর্গ লাভবান হবে। রাজনৈতিক দৃষ্টিকোণ থেকে এই যোজনা ২০১৯ এ নরেন্দ্র মোদীর জয় নিশ্চিত করতেও সক্ষম হবে। UBI এর মাধ্যমে কৃষক ও বেকারদের একটা নির্দিষ্ট টাকা প্রদান করা হবে।

কৃষক ও শিক্ষিত বেকার দুই বর্গ এই টাকা বিশেষভাবে কাজে লাগাতে পারবে। এই টাকা সরাসরি কৃষক বা বেকারদের ব্যাংক খাতায় ঢুকিয়ে দেওয়া হবে। সরকার বিগত ২ বছর ধরে এই যোজনার উপর কাজ করে চলেছে।সরকারের অর্থনৈতিক উপদেষ্টা অরবিন্দ সুব্রামানিয়ামও দেশে UBI চালু হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন।

9 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.