Press "Enter" to skip to content

ভারতের হামলার পর আমেরিকার হাতে পায়ে ধরল পাকিস্তান, কিন্তু উল্টে আমেরিকাই দিয়ে দিলো ঝটকা

ভারতের দ্বারা করা পাকিস্তানের জঙ্গি ঠিকানা গুলোতে হামলার একদিন পর আমেরিকার বয়ান সামনে এলো। আমেরিকার বিদেশ মন্ত্রী মাইক পোম্পিয়ো বলেন, ‘ আমি পাকিস্তানি বিদেশ মন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি এর সাথে কথা  বলে সামরিক কর্মকাণ্ড এড়াতে এবং বর্তমান উত্তেজনাকে হ্রাস করার অগ্রাধিকারকে গুরুত্ব দিয়েছে। পাকিস্তানের উচিৎ তাঁদের মাটিতে সক্রিয় জঙ্গি সংগঠন গুলোর বিরুদ্ধে তৎক্ষণাৎ পদক্ষেপ নেওয়া।”

পম্পিয়ো বয়ান জারি করে বলেন, ‘২৬ ফেব্রুয়ারি সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ভারতের কর্মকাণ্ডের পর ওই অঞ্চলে শান্তি ও নিরাপত্তা বজায় রাখতে, ঘনিষ্ঠ নিরাপত্তা অংশীদারিত্ব এবং ভাগের লক্ষ্য জোরদার করার জন্য ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গে কথা বলছেন।” এর সাথে উনি দুই দেশের মধ্যে শান্তি বজার রাখার আবেদন করেন।

পুলওয়ামা জঙ্গি হামলার ১২ দিন পর পাকিস্তানের এই কাপুরুষচিত কাজকে ভারত নিজেদের ভঙ্গিতেই মোক্ষম জবাব দিয়েছে। মঙ্গলবার সকালে ভারতীয় বায়ুসেনার বিমান নিয়ন্ত্রণ রেখা পার করে জঙ্গি আস্তানা গুলোকে ধ্বংস করে দেয়। বায়ুসেনার বিমান পাকিস্তানের জঙ্গি আস্তানায় ১০০০ কেজির বোম ফেলে পুরো জঙ্গি ঘাঁটি নষ্ট করে দেয়।

বায়ুসেনার মিরাজ যেই লক্ষ্য গুলোকে ধ্বংস করেছিল, তাঁদের মধ্যে একটি পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখার একটি এলাকাও আছে। তাছাড়াও লিপা, কাহুতা, কোতরলী, শারদী কেল, দুধনিয়াল, জুরা এবং আরও কিছু এলাকায় ভারতের বায়ুসেনার প্রকোপে পরে।

বায়ুসেনার সূত্র থেকে পাওয়া অনুযায়ী, ‘২৬ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় যুদ্ধ বিমান মিরাজ ২০০০ এর একটি দল নিয়ন্ত্রণ রেখা পার করে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের জঙ্গি ঘাঁটি গুলোতে বোম ফেলে পুরো ধ্বংস করে দেয়। জঙ্গি আস্তানাতে ১০০০ কেজির বোম ফেলা হয়েছিল বায়ু সেনার তরফ থেকে। বায়ু সেনার এই হামলায় পাকিস্তানের ৩০০ এর বেশি জঙ্গি মারা যায় বলে

9 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.