Press "Enter" to skip to content

“বাবর,ঔরঙ্গজেব, গজনী নয় বরং ভগবান রাম আমাদের পুর্বপুরুষ”- মহম্মদ আফজল

সত্যকে যতই দাবিয়ে রাখা হোক, সত্য কখনো বদলে যায় না। ভারতের অনেকে মুসলিম নিজেকে বাবর, ঔরঙ্গজেব, গজনী ইত্যাদির বংশধর মনে করে। কিন্তু সত্য এটাই যে এরা সকলেই হিন্দুর বংশধর- হিন্দুর সন্তান, এটা DNA টেষ্টতেও প্রমাণিত হয়েছে। আরেকটা বিষয় জানিয়ে রাখি, সৌদি আরবের এলাকায় ভারত, পাকিস্থান ও বাংলাদেশের মুসলিমদের আল হিন্দ মাসকিন বলা হয়, এর অর্থাৎ সেই সমস্থ মুসলিম যাদেরকে হিন্দে(ভারত) মুসলিম বানানো হয়েছে। সোজা ভাষায় এনারা প্রথম থেকে মুসলিম ছিলেন না পরে ধর্মান্তরিত করা হয়েছে। সত্য কড়া হয়, এই কারণে বেশি মানুষ এটা স্বীকার করেন না।

তবে ইন্দোনেশিয়া যেখানে বিশ্বের সবথেকে বেশি মুসলিম বাস করে সেখানের যে কোনো মুসলিমকে এই বিষয়ে প্রশ্ন করলে তারা নিজেদেরকে হিন্দুর বংশধর তথা ভগবান রামের বংশধর বলেন। ইন্দোনেশিয়া মুসলিমরা স্বীকার করেন যে তাদেরকে হিন্দু থেকে ধর্মান্তরিত করা হয়েছে। ভারতেও এমন মুসলিম রয়েছে যারা এই তথ্যকে স্বীকার করে। যদিও ভারতে এই মুসলিমদের সংখ্যা খুবই সামান্য।

RSS এর একটা অল্পসংখক শাখা রয়েছে যার প্রমুখ মহম্মদ আফজল, যিনি খোলা মঞ্চ থেকে স্বীকার করে বলেন, আমরা বাবর, ঔরঙ্গজেব, গজনীর বংশধর নয় বরং ভগবান রামের বংশধর। একই সাথে মহম্মদ আফজল মুসলিমদের কাছে অনুরোধে করে বলেন, কোনো মুসলিম যেন বাবরি মসজিদের জন্য রামমন্দিরের বিরোধ না করে। কারণ ভগবান রাম আমাদের পূর্বজ।

জানিয়ে দি, আর ২ মাসের মধ্যে রামমন্দিরের পুরো ইস্যু আদালতের মাধ্যমে সমাধান হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে। এই সময় আসাউদ্দিন, আজম খান এর মতো নেতারা দেশে সাম্প্রদায়িক পরিস্থিতি সৃষ্টি করার সুযোগ খুঁজছে। এই অবস্থায় RSS এর সংখ্যালঘু শাখার প্রধানের মতো ব্যক্তিরা বাইরে এসে নিজেদের মন্তব্য প্রকাশ করলে তা দেশে শান্তি বজায় রাখার জন্য কাজে লাগবে।