Press "Enter" to skip to content

ব্রেকিং খবর :সবথেকে বড় চোর বিজয় মাল্য ফিরতে চলেছে ভারতে।

একদিকে যখন মমতা বনাম CBI ইস্যুতে দেশের রাজনৈতিক মহল উত্তপ্ত তখন আরো এক বড় সাফল্য লাভ করলো মোদী সরকার। নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পর থেকেই দেশ থেকে পলাতক অপরাধীদের ফিরিয়ে আনার জন্য লেগে পড়েছিল। মোদী সরকার ক্ষমতায় এসেই দেশে বেশকিছু আইন তৈরি করেছিল যার মাধ্যমে বিদেশে লুকিয়ে থাকা অপরাধীদের দমন কাজ শুরু হয়েছিল। কয়েকদিন আগেই VVIP হেলিকপ্টারের দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্ত ৩ জনকে দেশে টেনে আনা হয়েছে। আজ আজ লণ্ডনে বসে থাকা বিজয় মালিয়াকে দেশে ফেরানোর ইস্যুতে বড় সাফল্য পেয়েছে মোদী সরকার। লন্ডনের গৃহসচিব মন্ত্রণালয় বিজয় মালিয়াকে ভারতের হাতে তুলে দিতে প্রস্তুত হয়েছে। আজকেই লন্ডন, মালিয়াকে ভারতের হাতে তুলে দিতে প্রস্তুত হয়েছে।

ভারতে যেটা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক বলে পরিচয় সেটা লন্ডনে স্বরাষ্ট্র সচিব, এই সচিব বিজয় মালিয়া ভারতের হাতে তুলে দিয়েছে। এবার বিজয় মালিয়া ভারতের তদন্তকারী সংগঠনের হাতে চলে আসবে। ভারত সরকারের লাগাতার প্রয়াসের ফলে এই সাফল্য এসেছে। জানিয়ে দি, মোদী মালিয়ার ১৩,০০০ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে নিয়েছে যা নিয়ে নিজেই টুইট করেছিল সে। মালিয়ার বক্তব্য ছিল যে, সে মাত্র ৯০০০ কোটি ঋণ নিয়েছে কিন্তু মোদী সরকার তার ১৩,০০০ কোটি বাজেয়াপ্ত করেছে।

সূত্রের খবর, কয়েকদিনের মধ্যেই বিজয় মালিয়া ভারতের ED ও CBI এই হাতে থাকেব। বিজয় মালিয়া ভারতে এলেই বড় বড় নেতাদের পর্দাফাঁস হবে। কংগ্রেস আমলে যত দুর্নীতি হয়েছিল তার বড় রকমের পর্দাফাঁস সম্ভব হবে। কংগ্রেস আমলেই বিজয় মালিয়াকে বহু কোটি টাকার ঋণ দেওয়া হয়েছিল।

কংগ্রেস আমলে বিজয় মালিয়া দেশে সম্মানের সাথে ঘুরে বেড়াতো, শুধু এই নয় মালিয়াও কংগ্রেসের নেতাদের বড় বড় উপহার দিত। মালিয়া তার বিমানে কংগ্রেসি নেতা মন্ত্রী এমনকি সোনিয়া গান্ধীকেও চাপিয়ে ভ্ৰমন করাতো। মোদী ক্ষমতায় এলেই মালিয়ার দুর্নীতি প্রকাশ হতে শুরু করে এবং সে দেশ ছেড়ে পলায়ন করে। তবে এবার মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই মালিয়াকে টেনে দেশে প্রত্যাপর্ন করানো হবে।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.