Press "Enter" to skip to content

VVIP হেলিকপ্টার মামলায় বড় সাফল্য মোদী সরকারের! দুই অপরাধীকে দুবাই থেকে গ্রেপ্তার করে ভারতে আনলো ইডি।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইতে আরো এক বড় সাফল্য পেল মোদী সরকার। দুদিন আগেই দুর্নীতির দমনের রাঙ্কিং এ চীনকে পেছনে ফেলে দিয়েছে এখন আর এক বড় জয় পেল সরকার। ভারতের জনগণের অর্থ লুটে বিদেশে বসে থাকা ব্যাক্তিদের উপর লাগাতার একশন নিয়ে চলেছে কেন্দ্র সরকার। VVIP হেলিকপ্টার মামলায় অভিযুক্ত রাজীব সাক্সেনাকে ভারতে নিয়ে আসা হয়েছে। অগাস্ট ওয়েস্টল্যান্ড মামলায় ভারত একটা বড় সাফল্য লাভ করেছে। ক্রিস্টেইন মিশেলের পর এবার এই মামলায় অভিযুক্ত রাজীব সাক্সেনাকে ভারত প্রত্যাপর্ন করানো হয়েছে। আধিকারিকরা জানিয়েছেন যে বুধবার রাতে রাজীব সাক্সেনাকে দুবাই থেকে দিল্লীতে আনা হয়েছে।

অগাস্ট ওয়েস্টল্যান্ড মামলায় অভিযুক্তদের উপর লাগাতার কার্যবাহী চলছে যার দরুন সিকঞ্জা আরো শক্তিশালী হচ্ছে। ইডি দুবাইতে রাজীব সাক্সেনাকে হেফাজতে নিয়েছিল যারপর বুধবার রাতে দিল্লীতে প্রত্যাপর্ন করানো হয়েছে। ক্রিস্টেইন মিশেলের পর এই মামলায় এটা দ্বিতীয় প্রত্যাপর্ন হয়েছে। রাজীব সাক্সেনা মানি লন্ডারিং এ যুক্ত কিনা সেই বিষয়ে ইডি তদন্ত চালাচ্ছে। বুধবার সকালে ইডির আধিকারিকরা রাজীব সাক্সেনাকে গেপ্তার করেছিল।

অগাস্ট ওয়েস্টল্যান্ড দুর্নীতি মামলায় আরো এক অভিযুক্ত দীপক তালয়ারকেও ভারত প্রত্যাপর্ন করানো হয়েছে। এক প্রাইভেট বিমানের মাধ্যমে এই দুজন অভিযুক্তকে ভারতে ফেরানো হয়েছে। রাজীব সাক্সেনা ও তার পত্নী শিবানী দুজনেই এই দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্ত। দু জনেই দুবাইয়ের এক কোম্পানির নির্দেশক হিসেবে কাজ করে। চপার ডিলে এই কোম্পানিকে মানি লন্ডারিং এর জন্য ব্যাবহার করা হয়েছিল বলে অভিযোগ রয়েছে।

জানিয়ে দি, এই দুর্নীতি মামলা সোনিয়া গান্ধী ও আহমেদ প্যাটেল জড়িত রয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। বিজেপি সাংসদ সুব্রামানিয়াম স্বামী এই মামলার দায়িত্ব সামলেছেন এবং অভিযুক্তদের উপর সিকঞ্জা টানছেন। ভারতীয় অপরাধীদের বিদেশ থেকে ফিরিয়ে আনার জন্য স্বামী টুইট করে প্রধানমন্ত্রী মোদীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। রাজীব সামসের বাহাদুর সাক্সেনা ও দীপক তলোয়ারকে ভারতে ফিরিয়ে এনে মোদী সরকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইকে আরো মজবুত করছেন বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

7 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.