Press "Enter" to skip to content

মোদী বিরোধী জোটে বড়ো ফাটল!! ২০১৯ নির্বাচনের আগেই কি হার মেনে গেল বিরোধীরা?

একদিকে যেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশের গরিবি, দুর্নীতিকে হারানোর জন্য নিজের সমস্থ শক্তি প্রদান করেছেন সেইসময় দেশের বিরোধীদলগুলি মোদীকে হারানোর জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। কিন্তু ২০১৯ এর নির্বাচনের আগে মোদী বিরোধীরা জোট হয়ে মোদী বিরোধীতা করা তো দূর, নিজের এক হতে পারবে কিনা সেই নিয়েই প্রশ্ন উঠেগেছে। আসলে কিছুমাস আগে কর্নাটকে ডি কুমারস্বামী শপদ গ্রহণের সময় যেভাবে সোনিয়া, মায়াবতী, মমতা এক হয়েছিল তাতে মনে করা হচ্ছিল যে বিরোধীরা জোট হয়ে মোদী বিরোধতায় নামতে পারবে।

কিন্তু এখন যা খবর সামনে আসছে তাতে গড়ে উঠবে কিনা তাই নিয়েই সন্দেহ প্রকাশ হচ্ছে। আপনাদের জানিয়ে রাখি যে সোনিয়া ও মায়াবতী কিছুমাস আগে গলাগলি করে করার গল্প বলছিলেন তারাই আজ একে অপরকে আক্রমণ করতে শুরু করেছে। মায়াবতী সোনিয়া গান্ধী ও রাহুল গান্ধীর উপর আক্রমন করে যা বলেছেন তাতে তোলপাড় পুরো রাজনৈতিক মহল। আসলে বসপা এর সুপ্রিমো মায়াবতী রাহুল গান্ধীর উপর আক্রমণ করে বলেন রাহুল গান্ধী কখনো প্রধানমন্ত্রী হতে পারবে না। কারণ তার চেহেরার তার বাবার থেকে বিদেশি মায়ের ছাপ বেশি। বসপার মতে ইতালির এন্টোনিয়া মিয়ানোর(সোনিয়া গান্ধী) এর ছেলে কখনো মোদীর সাথে পেরে উঠবেন না। মোদীকে টক্কর দিতে পারলে একমাত্র মায়াবতীই পারবেন। মায়াবতীর এই মন্তব্য থেকে এটা পরিষ্কার যে মোদী বিরোধী কে জোটবন্ধনের কথা বলা হচ্ছিল তা সম্ভবত হয়ে উঠবে না।

অন্যদিকে কর্নাটকে কংগ্রেস ও জেডিএস যে জোট বন্ধন করেছে সেখানেও ফাটল ধরেছে বলে জানা গিয়েছে। এখন বাকি বলতে কেজরিওয়াল ও মমতা যাদের সমর্থকরা তাদেরকে প্রধানমন্ত্রী পদে থাকার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন।কিন্তু অন্যদিকে রাহুল গান্ধী এই মহাজোটবন্ধনের নেতৃত্ব দেবেন বলে ঠিক করেছে কংগ্রেস। তাই ২০১৯ এর নিবার্চনের আগে এই জোটবন্ধন নিজেদের একত্র করতে পারবে কিনা তাই নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিতে শুরু করেছে।