Press "Enter" to skip to content

“দেশজুড়ে মাদ্রাসা বন্ধ না হলে দেশ ইসলামিক আগ্রাসনের দিকে এগিয়ে যাবে”: ওয়াসিম রিজভী।

উত্তরপ্রদেশের শিয়াওয়াকফ বোর্ডের ওয়াসিম রিজভী আরো একবার দেশজুড়ে চলা মাদ্রাসাগুলি বন্ধের জন্য দাবি তুলেছেন। প্রধানমন্ত্রী মোদীকে চিঠি লিখে প্রাথমিক মাদ্রাসা বন্ধ করার জন্য আবেদন জানিয়েছেন ওয়াসিম রিজভী। চিঠিতে রিজভী লিখেছেন মাদ্রাসাতে শিক্ষার নামে ছাত্রদের কট্টরপন্থী চিন্তাধারায় প্রভাবিত করা হয়। যদি মাদ্রাসা বন্ধ করা না হয় তবে দেশের অর্ধেকের বেশি মুসলিম যুবক isis এর সমর্থনকারীতে পরিণত হবে। ওয়াসিম রিজভী বলেন প্রথমে উচ্চশিক্ষা তারপর ধার্মিক তামিল নেওয়া উচিত।
ওয়াসিম রিজভী কিছুদিন আগে মাদ্রাসার সাথে আতঙ্কবাদকে জুড়ে ছিলেন। এরপর উনাকে অনেক কট্টরপন্থী সোশ্যাল মিডিয়ায় হুমকি দিয়েছিল। এই নিয়েও মুখ খুলেছিলেন ওয়াসিম রিজভী।

ধার্মিক কট্টরপন্থীরা ওয়াসিম রিজভীকে খুন করার হুমকি দিয়েছেন যার জন্য উনি আগে থাকতেই লখনউ এর তালকোটরাই নিজের বাবার কবরের কাছে কবর তৈরি করে রেখেছেন। রিজভী বলেন আমি মরতে ভয় পায় না, আমি কোনো ভুল মন্তব্যও করিনি। ওয়াসিম রিজভী এর আগে বলেছিলেন যে কিছু মাদ্রাসা আতঙ্কবাদ, জিহাদের শিক্ষা দেয়। এই সমস্থ জিহাদি কার্যকলাপ বন্ধ হওয়ার দাবি তুলেছিলেন রিজভী।

জানিয়ে দি, রিজভী বানিয়ে কোনো কথা বলেননি। সরকার ও গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্ট যা বলছে সেটাই তুলে ধরে ছিলেন রিজভী। রিজভী বলেন আমি মুসলিম সমাজের বাচ্চাদের সঠিক পথে নিয়ে যাওয়ার পথের সমর্থন করি। কিন্তু কিছুলোক জিহাদ ফেলানোর জন্য মাদ্রাসায় ভুলভাল শিক্ষা প্রদান করে এবং ভবিষ্যতে মাদ্রাসায় পড়াশোনা করা ছাত্র মানব বিরোধী হয়ে পড়ে।

ওয়াসিম রিজভী বলেছেন যদি দেশকে রক্ষা করতে হয়, ইসলামিক আগ্রাসন থেকে বাঁচাতে হয় তবে অবশ্যই ভারতের মাদ্রাসাগুলিকে বন্ধ করতে হবে। মাদ্রাসার কারণেই ভারতের মুসলিম যুবকরা বিমুখ পথে যাচ্ছে।