Press "Enter" to skip to content

আধিকারিকরা মিউজিয়ামে রাখতে চেয়েছিলেন PM মোদীর মোমের পুতুল! মোদীজি যা জানালেন তা আপনার মন জয় করবে।

মাদাম তুসা এমন একটা পদর্শনী স্থল যেখানে দেশ দুনিয়ার বিখ্যাত মানুষদের মোমের পুতুল দেখানো হয়। একটা বিশাল সংখ্যায় মানুষজন এই পদর্শনীতে যোগদান করেন এবং বিখ্যাত মানুষদের মোমের পুতুলের সাথে ছবি তুলে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন। মাদাম তুসা পদর্শনীর একটা বিশেষত্ব এই যে এখানে রাখা সমস্ত পুতুলকে দেখতে আসল ব্যাক্তির মতোই মনে হয়। আসলে এই মোমের পুতুলগুলির নির্মাণের জন্য এক্সপার্টরা আসল ব্যাক্তির দেহের প্রত্যেক অঙ্গের সঠিক পরিমান ও রং যাচাই করে তারপর কাজ শুরু করেন । যার জন্য ম্যাডাম তুসায় উপস্থিত জনগণ এই পদর্শনীর মজা খুব ভালভাবে নিতে পারেন। এখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সহ বলিউডের নানা বিখ্যাত অভিনেতাদের ছবি সাজানো থাকে।

আগের বছর দিল্লিতে এক জাদুঘরে মাদাম টুসার আয়োজন করা হয়েছিল। দিল্লীতে ম্যাডাম তুসার আয়োজনকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এমন মন্তব্য করেছিলেন যা দেশবাসীর মন জয় করেছিল। আসলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশের সবথেকে জনপ্রিয় ব্যাক্তি হওয়ায় তারা পদর্শনীতে মোদীজির মোমের পুতুল লাগানোর জন্য অনুমতি চেয়েছিল। মোদীজির মোমের পুতুল লাগানো নিয়ে তিনি এমন মন্তব্য করেছিলেন যে সকলে অবাক হয়েছিলেন। মোদীজি বলেছিলেন মিউজিয়ামে গান্ধীজির মোমের পুতুলের হাতে ঝাড়ু ধরিয়ে দিতে।

আসলে মোদীজির এইকথা বলার কারণ মোদীজি চেয়েছিলেন গান্ধীজির ঝাড়ু সহিত ছবি দেখে যাতে মানুষের মধ্যে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার মনোভাব ফুটে উঠে এবং সকলে দেশকে সাফাই কাজে এগিয়ে নিয়ে যায়। গান্ধীজির ছবি দেখে যাতে দেশবাসী অনুপ্রাণিত হতে পারে তাইজন্যেই এমন কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। উল্লেখ্য, মাদাম তুসার আধিকারিকদের সাথে ইন্টারভিউ এ তারা জানিয়েছিল যে দিল্লিতে মাদাম তুসার যে মিউজিয়াম খোলা হবে তাতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র প্রথমে লাগানো হবে।

তখন আধিকারিকদের উপদেশ দিয়ে নরেন্দ্র মোদীজি বলেন আমরা পুতুল না লাগিয়ে এলাকার আসে পাশে গান্ধীজি সাফাই কাজ করছে সেইভাবে একটা পুতুল লাগাতে যাতে দেশের মানুষ গান্ধীজির পুতুল থেকে প্রেরণা পেতে পারে। মোদীজি আধিকারিকদের বলেন আমি আপনাদেরকে গান্ধীজির ঝাড়ু লাগানো একটা ছবি পাঠাবো সেটার অনুরূপ আপনারা পুতুল তৈরি করবেন। লক্ষণীয় বিষয় এই যে, অন্যান্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জায়গায় অন্যকোনো রাজনীতিবিদ হলে তারা নিজেদের মোমের পুতুল তৈরি জন্য তৎক্ষনাৎ প্রস্তুত হয়ে যেতেন কিন্তু মোদীজি সবক্ষেত্রেই দেশের বিকাশ ও সামাজিক উন্নয়ন কথা ভেবে সিধান্ত নিয়ে দেশবাসীকে চমকে দেন।