Press "Enter" to skip to content

“ঝাটা পেটা করে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে তাড়ানো হবে ” – তৃণমূল মন্ত্রী, রত্না ঘোষ

ভারতীয় সেনাকে নিয়ে রাজনীতি করছে বিজেপি। ভারতীয় সেনাকে ‘মোদী সেনা” বলে অপমান করছে বিজেপি। এই কথা গুলো আমাদের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর মুখে এখন প্রায়ই শোনা যায়। ওনার মতে, একমাত্র উনিই দেশের সেনাকে সন্মান করেন। আর কেউ না।

কিন্তু এই উনিই নোটবন্দির সময় দেশের সেনাকে তোলাবাজ বলেছিলেন। ওনার দলের নেতা দেশের সেনার হাত ধরে মুচকে দেবেন বলেছিলেন। তখন মমতা ব্যানার্জীর মুখ থেকে কোন আওয়াজ বেরায় নি, কারণ দিদির দলের লোকেরা ভারতীয় সেনার হাত মুচড়ে দিয়ে সেনার সন্মান বৃদ্ধি করছিলেন!

তৃণমূলের দোর্দন্ডপ্রতাপ নেতা অনুব্রত মণ্ডল সেনাকে মোদীর দালাল বলে আখ্যা দিয়েছিলে। তখনও সেনার অপমান করা হয়নি। কোচবিহারের তৃণমূল জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ মহাশয় সেনাকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য করেছিলেন। তখনও মমতা ব্যানার্জী চুপ ছিলেন। কারণ সেনাকে মারুক, ধরুক আর যাই করুক! ওনারা তো সেনাকে মোদী সেনা বলে অপমান করেন নি।

এবার তৃণমূলের নেত্রী তথা রাজ্যের মন্ত্রী সেনাকে নিয়ে চরম অপমান জনক কথা বললেন। তৃণমূলের নেত্রী তথা রাজ্যের মন্ত্রী তাঁদের মহিলা সদস্যদের সেনাকে ঝাঁটা পেটা করার নিদান দিয়েছেন। কিন্তু তাতে কি? উনি তো সেনাকে মোদী সেনা বলেন নি। তাই সাত খুন মাফ।

নির্বাচন কমিশনের কড়া নির্দেশিকা জারি থাকার পরেও তৃণমূলের নেতা নেত্রীরা নিজেদের রাজনৈতিক চরিতার্থ সফল করতে বারবার সেনাকে অপমান করে চলেছেন। আর মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী সেগুলো মুখ বুঝে সয়ে চলেছেন। কারণ ওনার কাছে দেশের সেনার সন্মানের থেকেও নিজদের দলের এই সম্পদ গুলোর সন্মান অনেক বেশি!

One Comment

  1. Devender Singh Devender Singh

    This is not her fault to get the increment in Party there is a competition , she is one of the competitor, we feel shame on such Political leaders of our Nation , they are showing us the path of in tolerance

Leave a Reply

Your email address will not be published.