Press "Enter" to skip to content

প্রশাসনিক ক্ষমতাকে অপব্যবহার করলো মমতা! কাজে বাধা দিয়ে ৫ CBI আধিকারিক আটক করলো পুলিশ। দেখুন লাইভ ভিডিও !West Bengal live|Bengali News

কেন্দ্রীয় সংস্থা CBI কে সরাসরি বাঁধা দিলো মমতা ব্যানার্জীর সরকার। চিটফান্ড ও রোজভ্যালি সংক্রান্ত জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আজ পুলিশ কমিশনারের বাড়িতে যাওয়ার সিধান্ত নেওয়া হয়েছিল CBI এর তরফে কিন্তু রাজীব কুমারের বাড়িতে ঢুকতে বাধা প্রদান করে কলকাতা পুলিশ। জানিয়ে দি, গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে CBI কে আটকানোর কোনো নিয়ম থাকে না। CBI এর কাজে বাধা প্রদানের অর্থ দেশের গণতন্ত্রকে অপমান করা। তবে কোনো কিছুর তোয়াক্কা না করেই CBI এর কাজে বাধা প্রদান করে কলকাতা পুলিশ। শুধু বাধা প্রদান নয়, ৫ জন CBI আধিকারিককে বল প্রয়োগ করে আটকও করা হয়েছে।

রীতিমত ঘাড়ে ধাক্কা দিয়ে CBI এর গাড়ির চালকেও থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর। CBI তাদের উপযুক্ত নথি নিয়ে হাজির হয়েছিল কলকাতা পুলিস কমিশনার রাজীব কুমারের লউডনস্ট্রিটের বাড়ির সামনে উপস্থতি হয়েছিল। কিন্তু পুলিশ আগাম খবর পেয়েই পুরো এলাকা ঘিরে ফেলে এবং CBI কে আটকানোর জন্য হাতাহাতি লেগে যায়।

CBI এর আধিকারিকদের জোরজবস্তি গাড়িতে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় শেক্সপিয়র থানায়। কেন্দ্রীয় সংস্থার কাজে কলকাতা পুলিশ কেন এইভাবে বাধা দিয়েছে সেই নিয়ে বড় প্রশ্ন উঠতে শুরু হয়েছে। শুধু এই নয়, মুখ্যমন্ত্রীর মমতা ব্যানার্জীর নেতৃত্বে কলকাতা পুলিশ এমন কাজ করেছে বলেও দাবি উঠিয়েছে অনেকে। এর কারণ CBI এই আধিকারিকদের হেফাজতে নেয়ার পর মমতা রাজীব কুমারের সাথে মিটিং করতে বসে যান। CBI তদন্তে মমতা কেন এত উদ্বিগ্ন সেই নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।

মমতা যদি দুর্নীতিতে যুক্ত না থাকেন তবে কেন CBI কে আটকানোর চেষ্টা চালাচ্ছেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু হয়েছে। কলকাতা পুলিশ যদি তাদের এই নীতি বজায় রাখে তবে CBI কেন্দ্রীয় বাহীনির সাহায্য নিতে পারে বলে খবর পাওয়া গেছে। আর কেন্দ্রীয় বাহিনী নামলে পরিস্থিতি আরো লজ্জাজনক হবে বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.