Press "Enter" to skip to content

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কেবিনেটে ইনি হতে চলেছেন দেশের নতুন রক্ষামন্ত্রী!

২০১৯-এ ৩৫২টি সিটে জিত প্রাপের সাথেই বিজেপির নেতৃত্বে NDA জোটবন্ধন প্রচন্ড বহুমতে সাথে ক্ষমতায় ফিরেছে। একসাথেই নরেন্দ্র মোদীর ক্ষমতায় ফেরত আসা নির্ধারিত হয়েছে। তাই কিছুজন জানতে খুব উৎসাহিত যে নতুন মন্ত্রীমন্ডল কেমন হবে, আর কোন দ্বিগজদের এই প্রকার পদ দেওয়া হবে। আগের NDA সরকার প্রথম স্বর্গীয় মনোহর পারিকর আর তারপর নির্মলা সীতারমন রক্ষা মন্ত্রীর পদে বসিয়ে আক্রমক রক্ষা নীতিকে একটি নতুন ধারা দিয়েছিল। সন্ত্রাসবাদের উপর অনেকটা নিয়ন্ত্রণ আনতে সেনাদের ছাড়া এই দুই রক্ষা মন্ত্রীদেরও ভূমিকা আছে। তাই এবার প্রশ্ন হলো এইবারও কি নির্মলা সীতারমণ রক্ষা মন্ত্রীর পদে থাকবেন, নাকি অন্য কাউকে রক্ষা মন্ত্রীর পদে নিয়োগ করা হবে? এটা জানা আমাদের জন্য অত্যন্ত আবশ্যক। তাই আসুন দেখে নেওয়া যাক এবারে নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে গঠন হওয়া কেবিনেটে রক্ষা মন্ত্রী পদের দাবিদারে কে কে আছেন…

১)নির্মলা সীতারমন

রক্ষা মন্ত্রীর প্রবল প্রার্থীদের মধ্যে একজন হলেন নির্মলা সীতারমন। দেশের প্রথম মহিলা রক্ষা মন্ত্রী হওয়ায় গৌরব প্রাপ্যকারী নির্মলা সীতারমণ নিজের সংক্ষিপ্ত কার্যকালে মনোহর পাররিকরের সম্মানের মান রেখে সেটিকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। পুলওয়ামা হামলার পর যেই ভাবে উনি ধৈর্য রেখে বায়ুসেনাকে পুরোপুরি ভাবে সমর্থন করেছিলেন, তা সত্যি প্রশংসনীয়।
শুধু তাই নয় যেই ভাবে তিনি লোকসভায় অবিশ্বাস প্রস্তাবের উপর চর্চার সময় রাফেলের বিষয় রাহুল গান্ধীর সব মিথ্যে পর্দাফাঁস করে দেয়।

এএন-৩২ লেনদেনে ঘুষের মিথ্যে খবরের পর্দাফাঁস করেন…আর নিজের মন্ত্রালয়ের কার্যপ্রণালীর পারদর্শীতাকে বানিয়ে রাখেন এবং সেটিও কারোর থেকে গোপন নেই।
এনার কৃপায় যোগ্য মহিলাদের ভারতীয় সেনায় পার্মানেন্ট কমিশন,মিলিটারি পুলিশে জায়গা, আর কমবৈট পাইলট রূপে মহিলা বায়ুসেনা অফিসারদের ভর্তিকেও মঞ্জুরি দিয়েছেন। তাই ওনাকে রক্ষা মন্ত্রী হিসাবে বিনিয়ে রাখলে না শুধু ভারত, সমগ্র বিশ্বে এক সম্মতিসূচক বার্তা যাবে।

২)রাজনাথ সিং

বর্তমান গৃহমন্ত্রী রাজনাথ সিং কে অনেক বিশেষজ্ঞরা রক্ষামন্ত্রী হিসাবে প্রবল দাবিদার মনে করেন। এবার আপনাদের মনে প্রশ্ন উঠতেই পারে যে রাজনাথ সিং কে রক্ষা মন্ত্রী বানানোর ভাবনাচিন্তা কেন করা হচ্ছে… কারণ অমিত শাহ এর গৃহ মন্ত্রাণালয় পাওয়া নির্ধারিত। রাজনাথ সিং এই পদের জন্য এক যোগ্য প্রার্থী, কারণ তিনি কথা বলার ধরণে যতটাই নরম, তার কার্যশৈলীতে ততটাই গরম। নকসলবাদ ও অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসবাদের উপর অনেকটাই নিয়ন্ত্রন করতে সফল হয়েছেন। তাই যদি ওনার সফলতা অনুযায়ী রক্ষামন্ত্রালয়ের পদ ভার বরাদ্দ করা হয় তবে এটি একটি উচিত নির্ণয় হবে।

৩)অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল ভিকে সিং

আরেকটি নাম রক্ষামন্ত্রালয় সামলানোর জন্য সামনে আসছে, সেটি হলো অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল বিজয় কুমার সিং। গত সরকারে বিদেশ রাজ্য মন্ত্রী ছিলেন বিকে সিং এই পদের জন্য শুধু না কেবল যোগ্য প্রার্থী, তিনি একজন কুশল প্রসাসকও। যেই ভাবে উনি ইমেনে ফেঁসে থাকা অনেক ভারতীয় দের সকুশল ভাবে বেরিয়ে আসতে সাহায্য করেন, আর দুর্দান্ত গ্যাংস্টার ছোটা রাজনের  বহি: সমর্পনের জন্য যে নিজে ইন্ডনেসিয়া গেলেন তা সত্যি প্রশংসনীয়।

যদি নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে বিকে সিং কে রক্ষা মন্ত্রীর জন্য নির্বাচন করা হয়, তাহলে এটি ভারতীয় ইতিহাসে প্রথম সুযোগ হবে, যেখানে এক অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক দেশের রাখার দায়িত্ব নেবে। রক্ষা মন্ত্রী কে হবে সেটি পিএম মোদির শপথ গ্রহণের সময়ই জানা যাবে, কিন্তু নতুন রক্ষা মন্ত্রীর উপর দেশের রক্ষা ব্যাবস্থাকে মজবুত বানিয়ে রাখার দায়িত্ব থাকবে আর আমরা আসা করছি যাকেই এই পদ দেওয়া হবে তিনি পুরো সততার সঙ্গে নিজের কর্তব্যে পালন করবেন।