Press "Enter" to skip to content

১৫ বছর আগে BJP সমর্থকরা করেছিল বড়ো ভুল, ভুগতে হয়েছিল ১০ বছর! আজও সেই পরিস্থিতিতে বিজেপি?

নির্বাচনে মানুষ তাকেই ভোট প্রদান করে যে মানুষের জন্য কাজ করে। কিন্তু ভারতের মতো দেশে রাজনীতিতে একসাথে এতগুলো সমীকরণ কাজ করে যে বড়ো বড়ো এক্সপার্টরাও সঠিক ভবিষ্যতবাণী করতে পারে না। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা গণনাতে বড় বড় ভুল করে বসে থাকে।একইরকম একটি উদাহরণ আমরা দেখতে পেয়েছি যখন 2004 সালে সেই সময়ের জনপ্রিয় বাজপেয়ী সরকার ক্ষমতায় ফিরে আসায় ব্যর্থ হয়েছিল। ভারতীয় জনতা পার্টির(BJP) এর এই পরাজয়ের বিশ্লেষণ করে আমরা জানতে পারি যে জনগণের মধ্যে জনপ্রিয় হয়েও পরাজিত হয়েছিলেন কারণ উনার কোন প্রথাগত ভোট ব্যাংক(স্থায়ী ভোটব্যাঙ্ক) ছিল না।

লোকজনও বিজেপি(BJP) এর জয় নিয়ে এতো আশাবাদী যে তারা বিজেপিকে ভোট দেওয়ার জন্য ঘর থেকে বাইরে বের হয়নি, এর পরই ফলাফল আসতেই সকলে চমকে যায়। যখন বিজেপির পরাজয়ের খবর প্রকাশিত হয় তখন নির্বাচনী এক্সপার্টসরা দোষ বিজেপির সাইনিং ইন্ডিয়া এর অভিযান উপর দেয়। তারা বলেন যে সাইনিং ভারত প্রচারাভিযানের কারণে দেশের শহরতলি ও গ্রামবাসীরা বিজেপি থেকে কূট নজর আসছে যার কারণে পার্টির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। যদিও, সত্যই এটা ছিল না।

প্রকৃতপক্ষে, যদি আপনি বিজেপি এর কোর ভোট ব্যাংক উপর নজর রাখেন, তবে আপনি বিশেষ কিছু দেখতে পাবেন না ।দেশ এর দরিদ্র মুসলিম এর একটা বড়ো অংশ প্রায়ই কংগ্রেসেকে ভোট দেওয়ার জন্য এগিয়ে আসে, কিন্তু বিজেপির জন্য এমন কোনো পাক্কা ভোট আসে না। বিজেপির কোনো এমন ভোটব্যাঙ্ক নেই যারা নিশ্চিত ভোট দেবেই। লক্ষ লক্ষ সংখ্যায় দেশে এমন মানুষ থাকে যারা বিজেপিকে পছন্দ করলেও ভোট প্রদান করতে ঘর থেকে বের হয় না। ২০০৪ সালে ভোট প্রদান সংখ্যা কম হওয়ার কারণেই বিজেপিকে হারের মুখ দেখতে হয়েছিল এবং টানা ১০ বছর জনতাকে ভুগতে হয়েছিল।

Why Bharatiya Janata Party(BJP) fail to win 2004 Election:

নির্বাচনের আগেই বাজপেয়ী সরকারও উন্নয়নমূলক কাজ করার জন্য কোন প্রচেষ্টায় বাকি রাখেননি। দেশের অর্থনীতি শক্তিশালী করা হোক, বা বিশ্বব্যাপী স্তরে ভারতের অবস্থানকে আরও ভাল করা হোক, প্রতি দৃষ্টিভঙ্গিতে কিন্তু বিজেপি নিজেদের সেরা প্রদর্শন করতে সক্ষম হতো। বিজেপির জয় নিয়ে জনসাধারণ এতটাই আশাবাদী ছিল যে, তাদের নিজেদের দায়বদ্ধতা নিয়ে চিন্তা করেনি, এবং ফলস্বরূপ, বিজেপিকে হারের মুখোমুখি হতে হয়েছিল।

এখন 2019 এর লোকসভা নির্বাচন শুরু হয়েছে এবং ভারতের ভোটার আবার সেই একই পরিস্থিতিতেই দাঁড়িয়ে আছে। ভারতে অবশ্যই কাজ করার মতো সরকার ক্ষমতায় রয়েছে, যা গত 5 বছরে অসংখ্য সংখ্যক উপলব্ধি অর্জন করেছেন। এটাই না, ভারতের মানুষ এই বারেও বিজেপি বিজয় নিয়ে আশ্বস্ত আছেন, কিন্তু জনগণের এই মত ততক্ষণ বাস্তবে পরিবর্তন যেন না হয়,যতক্ষন পর্যন্ত না ভোটাররা বুথে গিয়ে ভোট প্রদান করেন।

অন্যান্য দলগুলি অবশ্যই তাদের ঐতিহ্যগত ভোট পাবে। কিন্তু বিজেপিকে জিতাবার জন্য আপনার বাড়ি থেকে বেরিয়ে ভোট দিতে যাওয়া অত্যন্ত জরুরি। অতএব আমাদের আপনার কাছে এই বিনীত অনুরোধ যে আপনি বুথে যান এবং সুষ্ঠভাবে ভোট দিয়ে আসুন। ভোট প্রদানে অসুবিধা হলে election commission of india এর উপর চাপ সৃষ্টি করুন। ভোট প্রদানের মাধ্যমেই শক্তিশালী সরকার গঠন সম্ভব এবং শক্তিশালী সরকার ভারতের জনগণের ভবিষ্যত নির্মাণ করতে সক্ষম। election commission of india এর কাছে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবি জানিয়ে নিরাপত্তার সহিত ভোট প্রদান করুন।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.