Press "Enter" to skip to content

সেনা জওয়ানদের নিয়ে নোংরা মন্তব্য করায় আজম খানের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ যোগী আদিত্যানাথের।

যত দিন যাচ্ছে ভারতে দেশবিরোধী শক্তিগুলি আরো প্রবল হয়ে উঠছে যারা ভারতের সেনাবাহিনীকে গালিগালাজ করে দেশ ছোট করে থাকে। এমনি এক ব্যাক্তি হলেন সমাজবাদী পার্টির নেতা এবং উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন ক্যাবিনেট মন্ত্রী আজম খান। এখম সেই আজম খান এক বড় অপরাধী মামলায় ফেঁসেই চলেছেন। বিতর্কিত বক্তব্যের জন্য বদনাম আজম খানের সমস্যা আরো একবার বেড়ে চলেছে। আসলে আজম খান রামপুরের এক সভা থেকে ভারতের বীর জওয়ানের জন্য অমর্যাদাপূর্ন ভাষণ দিয়েছিল।

এখন এই সমাজবাদী নেতার বিরুদ্ধে রামপুরে মামলা চলবে। সেনার জওয়ানদের নিয়ে কুমন্তব্য করায় এক বিজেপি নেতা বাহাদুর সাক্ষসেনার ছেলে আকাশ সাক্ষসেনা এক বছর আগে আজম খানের বিরুদ্ধে রিপোর্ট দায়ের করেছিল। এখন বিজেপি নেতৃত্ব যোগী আদিত্যনাথের সরকার আজম খানের বিরুদ্ধে কেস চালানোর অনুমতি প্রদান করেছে।

সমাজবাদী পার্টির বিধায়ক জুন ২০১৭ তে রামপুরে এক সভাকে সম্বোধিত করে কেন্দ্রের মোদী সরকার ও যোগী সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোপ প্রকাশ করছিল।মোদী ও যোগী সরকারের উপর আক্রমণ করতে করতে আজম খান উত্তেজিত হন এবং সেনার বিরুদ্ধেও অসভ্য ভাষায় আক্রমণ করেন।

সেনার গুলির চালানোর উপর মন্তব্য করতে গিয়ে আজম খান বলেছিলেন, জম্মু কাশ্মীর ও মিজোরামের মতো রাজ্যগুলিতে মহিলারা সেনার ধর্ষণের বদলা নিয়েছে। সেনা জওয়ানদের যে অংশ থেকে মহিলাদের সমস্যা ছিল সেই অংশ মহিলারা কেটে নিয়ে গেছে। আজম খানের এই নোংরা মন্তব্যের পর উনার উপর মামলা দায়ের করা হয়েছিল। এরপর পুলিশ চার্জসিট তৈরি করে শাসনব্যবস্থাকে তা জমা দেয় যারপর এখন যোগী আদিত্যনাথের সরকার এই কেস চালানোর অনুমতি দিয়েছে।